এবার জমবে নারায়ণগঞ্জের রাজনীতি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫৪ পিএম, ৯ জুন ২০১৯ রবিবার

এবার জমবে নারায়ণগঞ্জের রাজনীতি

ঘোষণা ছিল আগামী ১৬ জুন মাঠে নামবেন এমপি শামীম ওসমান। লক্ষ্য এবার নারায়ণগঞ্জকে পরিস্কার করা। নতুন প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য শহর উপহার দিয়ে যাওয়া। আর এ নিয়ে সকল স্তরের লোকজনদের সঙ্গেও তিনি করবেন মতবিনিময়।

অপরদিকে ঈদের পরেই আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি। সেটার লক্ষ্য নিয়েই এগুনো হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ বিএনপিও এতে পিছিয়ে নেই।

সর্বশেষ গত ২৬ মে নারায়ণগঞ্জ সরকারি তোলারাম কলেজে ইফতার মাহফিলে সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, ‘এখানে যারা আছো সবাই আমার ছেলে মেয়ের মত। তোমাদের সামনে আমি রাজনৈতিক বক্তব্য দিব না। কিন্তু ঈদের পর আমার তোমাদেরকে দরকার হবে। ১৬ জুন রাস্তায় নামবো। নারায়ণগঞ্জ পরিষ্কার করব। এজন্য তোমাদের দরকার হবে। আমি তোমাদের সাপোর্ট চাই। আমি তোমাদের নিয়ে একটি আদর্শ নারায়ণগঞ্জ আমি গড়ব।’

এর আগে গত ১ মে ফতুল্লায় খান সাহেব ওসমান আলী জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম সংলগ্ন নম পার্কে নারায়ণগঞ্জ নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশনের ফ্যামিলি নাইট ও সাংবাদিক মিলনমেলায় শামীম বলেছিলেন ঈদের পর থেকে নারায়ণগঞ্জটাকে একটু ঝাড়ু দিবো। যাবো ঘরে ঘরে আবার যেভাবে ছাত্র রাজনীতিটা শুরু করেছিলাম। ৭৫ এর পরে যেভাবে ক্লাস এইটে করেছিলাম। আরেকবার ঝাড়ু দেব, নারায়ণগঞ্জটাকে পরিষ্কার করে দিয়ে দরকার হলে সালাম দিয়ে বলবো আপনি থাকেন আমি গেলাম। আমার এই কাজে আমার নতুন প্রজন্মকে আমার পাশে আমার লিডার হিসেবে পাবো বলে আশা করি। যদি আমি বেঁচে থাকি আর আমার হায়াত থাকে তবে আমি নারায়ণগঞ্জকে ঠিক করে দিয়ে তবেই মরবো দোয়া করবেন।

শামীম ওসমানের সেই ঘোষণা অনুযায়ী বোঝা যাচ্ছে, তিনি এই বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব সহকারেই নিচ্ছেন। তিনি এটাকে তার রাজনৈতিক জীবনের অন্যতম বড় একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবেই দেখছেন। ফলে ঈদের পর নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা শামীম ওসমান তার নেতাকর্মীদের নিয়ে মাঠে নামছেন এবং সেই লক্ষ্যে নেতাকর্মীদেরকে প্রস্তুত করছেন।

অন্যদিকে ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকেই টানা তিন মেয়াদ ধরে ক্ষমতার বাইরে রয়েছে বিএনপি। ২০০৮ সালের নির্বাচনের পরাজয়ের মধ্য দিয়ে প্রথম দফা এরপর ২০১৪ সালের দশম জতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জনের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় দফা এবং ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্যে তৃতীয় দফা ক্ষমতার বাইরে থেকে যায় বিএনপি।

সেই সাথে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদ- দেন আদালত। এরপর থেকেই বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে আটকে রয়েছেন। বিএনপির কোন আন্দোলন কর্মসূচিই তাকে কারামুক্ত করতে পারেন নি। তবে এবার বিএনপি আন্দোলন কর্মসূচি নিয়ে জোরদার হওয়ার আভাষ দিচ্ছে।

এবার সারা রমজান জুড়েই নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপি সহ তাদের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে একের পর এক ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই সাথে গত কয়েকদিনে কেন্দ্রীয় ঘোষিত কর্মসূচিগুলোও গুরুত্ব দিয়ে পালন করে গেছেন। যার ধারবাহিকতায় কেন্দ্রীয় ঘোষণা অনুযায়ী ঈদের পর বৃহত্তরভাবে আন্দোলনের জন্য নারায়ণগঞ্জের রাজপথে রাজপথে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

সর্বশেষ গত ১ জুন শহরের মিশনপাড়ায় হোসিয়ারি সমিতি মিলনায়তনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ জিয়াউর রহমানের ৩৮ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে এ ইফতার মহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম বলেন, আমরা আজ এমন দিনে এখানে উপস্থিত হয়েছি যেখানে দলের নেত্রী আজ কারাগারে রয়েছে অসুস্থ অবস্থায়। আপনারা তার জন্য দোয়া করবেন এবং দলের জন্য জিয়া পরিবারের জন্য আগামী দিনে দলের বিভিন্ন নির্দেশনা পালনে প্রস্ততি নিন।

সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, ছাত্রদলকে নিয়ে আগামী দিনে আন্দোলন সংগ্রামে অংশগ্রহণ করে দেশকে মুক্ত করতে হবে আমাদেরকে। দেশ আজ এক জালিম শাসকের কবলে পতিত। জালিম শাসক গণতন্ত্রের মাতাকে কারাগারে আবদ্ধ করে রেখেছে একটি মিথ্যা মামলায়। দেশের মানুষ আজ এই সরকারের দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায়।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও