সভাপতি সেক্রেটারী আওয়ামী লীগকে পুতুল মনে করেন!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০৭ পিএম, ২৩ জুন ২০১৯ রবিবার

সভাপতি সেক্রেটারী আওয়ামী লীগকে পুতুল মনে করেন!

২৩ জুন দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল ও বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আর এই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে দলটি। তবে এবারের কর্মসূচিতে একটা নতুনত্ব ছিল। আর সেটা হলো বিভিন্ন জেলার ত্যাগী, পরীক্ষিত, দুঃসময়ের সাথী তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সংবর্ধনা দেয়া। যদিও শেষ পর্যন্ত এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

তবে এই সংবর্ধানা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে প্রত্যেক জেলাসমূহকে দুজন করে নেতার নাম পাঠানোর জন্য হয়েছিল। যার ধারাবাহিকতায় নরায়ণগঞ্জ জেলার নেতাদেরকেও বলা হয়েছিল নাম দেয়ার জন্য। কিন্তু এই নাম পাঠানো নিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদ বাদলের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারীতার অভিযোগ উঠেছে। তাদের বিরুদ্ধে দলকে খেলার পুতুল হিসেবে মনে করার অভিযোগ তুলছেন জেলা আওয়ামীলীগের অন্যান্য নেতারা।

জানা যায়, আওয়ামীলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন উপলক্ষ্যে গত ২০ জুন বৃহস্পতিবার বিকেলে ২নং রেলগেইট আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় কমিটির অন্যান্য নেতারা দাবী করেন প্রকৃত নেতাদেরকে যেনই সংবর্ধনা দেয়া হয়। যারা সারা জীবন আওয়ামীলীগ করেও কোন পদ পাই নাই তাদের নাম যেন কেন্দ্রে প্রেরণ করা হয়। টাকার বিনিয়ে যেন কোন নাম পাঠানো না হয়।

সভায় জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আরজু রহমান ভূইয়া প্রস্তাব করেন জেলার ৭ টি থানা থেকে দুই জনের নাম জমা দেয়া হোক। এরপর সেখান যে কোন দুইজনের নাম বাছাই করা হোক। আর এই বাছাইয়ের জন্য ৭জনের একটি কমিটি গঠন করা হোক। সেই সাথে যারা জেলা আওয়ামীলীগের পদে রয়েছেন তাদের নাম যেন কেন্দ্রে না দেয়া হয়। সংবর্ধনা তারাই পাওয়ার যোগ্য যারা সারা জীবন আওয়ামীলীগ করেও কোন পদ পাননি।

আরজু রহমান ভূঁইয়ার এই প্রস্তাবের ভিত্তিতে জেলা আওয়ামীলীগের নেতারা সিদ্ধান্ত নেন প্রাথমিক অবস্থায় প্রত্যেক থানা থেকে দুইজনের নাম প্রেরণের কথা বলেন। এরপর এখান থেকে দুইজনের নাম সংবর্ধনার জন্য কেন্দ্রে প্রেরণ করা হবে। আর ৭ টি থানা থেকে আসা নামগুলো যাছাই বাছাইয়ের জন্য জেলা আওয়ামীলীগের ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়। এছাড়া যারা জেলা আওয়ামীলীগের কমিটিতে রয়েছেন তাদের নাম কেন্দ্রে প্রেরণ করা হবে না।

৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির সদস্যরা হচ্ছেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সিনিয়র সহ সভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী, সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত মোঃ শহিদ বাদল, সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু, কার্যকরি সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বাবলী, অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম।

যার ধারাবাহিকতায় এই সাতজনকে নিয়ে জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে দুইজনের নাম চূড়ান্ত করার জন্য ২২ জুন শনিবার ২নং রেল গেইট আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে মিটিং করার কথা ছিল। কিন্তু এর আগের দিন ২১ জুন জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক এম এ রাসেল কমিটির সদস্যদের ফোন দিয়ে বিকেলে এটেল মাটি রেস্তেরাতে থাকার জন্য। পরবর্তীরা সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হতে অনাগ্রহ প্রকাশ করলে রাতে তাদেরকে ফোন করে বলা হয় সভাপতির বাসায় উপস্থিত হওয়ার জন্য।

আর এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী, সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু, কার্যকরি সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বাবলী, অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সভাপতি আব্দুল হাইয়ের বাসায় যেতে রাজী হননি। তবে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী দেশের বাইরে অবস্থান করছেন।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জানান, সভাপতি ও সেক্রেটারী মনগড়াভাবে দলকে পরিচালনা করতে চাচ্ছেন। তারা একবার ফোন দিয়ে বলেন এটেল মাটিতে যাওয়ার জন্য আবার আরেকবার ফোন দিয়ে বলেন বাসায় যাওয়ার জন্য। এটা কেমন আচরণ। তারা কি আওয়ামীলীগকে খেলার পুতুল মনে করেন? যে যখন যা খুশি তখন তাই করবেন। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ একটি বৃহৎ দল। এভাবে তো সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নেয়া যায় না। আমাদের কার্যালয় কেন বাসায় আর রেস্তোরায় যেতে হবে?

এদিকে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান কেন্দ্র থেকে স্থগিত করা হয়েছে। ফলে নারায়ণগঞ্জ জেলা থেকে এখনও কেন্দ্রে নাম পাঠানো হয়নি। পরবর্তীতে যখন নাম পাঠানোর জন্য বলা হবে তখন নারায়ণগঞ্জ থেকে নাম পাঠানো হবে। তবে সেটা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও