আধিপত্য নিয়ে স্বামীর পর স্ত্রী কুট্টি খুন, ছিল ২ মামলা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১০ পিএম, ২৬ জুন ২০১৯ বুধবার

আধিপত্য নিয়ে স্বামীর পর স্ত্রী কুট্টি খুন, ছিল ২ মামলা

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে মারা যান জাতীয় পার্টি নেতা এম এ হাসান ওরফে হাসান মুহুরী যাঁর স্ত্রী ছিলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেত্রী ও ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টি। এবার তাকেও প্রাণ দিতে হয়েছে অজ্ঞাত পরিচয় দুর্বৃত্তদের হাতে। ২৬ জুন বুধবার ভোরে উপজেলার পশ্চিমগাঁও এলাকায় নির্মম হত্যাকান্ডের শিকার হন তিনি।

এ ঘটনায় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেছেন, কুট্টির স্বামীকেও হত্যা করা হয়েছিল। কারণ এলাকার অনেক মাদক মামলায় কুট্টি তার স্বামীকে দিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে লড়াতো। পরবর্তীতে স্বামীকে হত্যার পর কুট্টিকে টার্গেট করা হয়েছিল। কারণ মামলাটি বিচারাধীন। দ্রুত নিস্পত্তি হওয়ার কথা। এখন যদি বাদীকে মেরে ফেলা হয় তাহলে অপরাধীরা পার পাবে এমন ধারণা ছিল। হয়তো সে কারণেই কুট্টিকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

এর আগে ২০১৭ সালের ২৯ অক্টোবর রাতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চনাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী মহিলা লীগের সভানেত্রী ও ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টির সঙ্গে বঙ্গবন্ধু যুব পরিষদের সভাপতি আনোয়ার হোসেন পক্ষের সংঘর্ষে হাসান মুহুরীসহ ২০ জন আহত হয়। পরে ৫ নভেম্বর রাজধানীর জাপান-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসানের মৃত্যু ঘটে।

এদিকে ২৬ জুন ফজরের নামাজের পর ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টি চনপাড়া থেকে চনপাড়া কায়েতপাড়া গাজী বাইপাস সড়কে দিয়ে পশ্চিমগাঁও এলাকার দিকে হাটতে বের হয়। বুধবার ভোরে বিউটি আক্তার কুট্টি পশ্চিমগাঁও এলাকায় পৌছাঁলে একদল দূর্বৃত্ত আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা তার উপর হামলা চালিয়ে তাকে এলোকপাথারিভাবে কুপিয়ে জখম করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ বিউটি আক্তার কুট্টির লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ২ টি ধারালো চাপাতি উদ্ধার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিউটি আক্তার কুট্টির নামে রূপগঞ্জ থানায় দুটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। যার মধ্যে একটি ২০০৮ সালের ১১ মার্চ আইন শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে ও অন্যটি ২০১৭ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের। এগুলো ছাড়াও বিউটি আক্তারের একমাত্র মেয়ের জামাতা সরকারি চাল চুরি অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালতের সাজায় কারাগারে আছে।

জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদের পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, মাদক ও এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একটি গ্রুপের সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল বিউটি আক্তারের। আর এ বিরোধ জের ধরেই হত্যাকা- হয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়। তবে গ্রুপের বিস্তারিত জানানি। ইতোমধ্যে পুলিশের ও ডিবি সহ একাধিক টিম হত্যাকারীদের সনাক্ত ও গ্রেফতারের অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও