বহিরাগতদের কর্মসূচী জানে না যুবদল সভাপতি!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৪৬ পিএম, ৯ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার

ফাইল ফটো
ফাইল ফটো

দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপির ক্ষমতার বাইরে থাকাবস্থায় দলীয় আন্দোলন সংগ্রামে নিস্ক্রিয় ছিল নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদল। আর সেই নিস্ক্রিয় থাকা নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের গতি ফিরাতে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেই সাথে কয়েক মাসের ব্যবধানে পূর্ণাঙ্গ কমিটিও ঘোষণা করে দেয়া হয়। কিন্তু এই কমিটির ঘোষণার পর একের পর এক বিতর্কিত কর্মকান্ডে জড়িয়ে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের নেতাকর্মীরা। সেই সাথে এবার থানা কমিটিকেও বিতর্কিত করে তারা জেলা যুবদলের নেতাকর্মীরা। দলীয় আন্দোলন কোন ভূমিকা না রেখে থানা কমিটির নাম দিয়ে তারা ভোগ বিলাসে মত্ত রয়েছেন। আবার দিন শেষে এই ভোগ বিলাস চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবী হিসেবে আখ্যায়িত করার চেষ্টা করছেন। অথচ তাদের এসকল কর্মকান্ড সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট থানা কমিটির শীর্ষ নেতারা অবগত নন।

সূত্র বলছে, ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদ- দেন আদালত। এই রায়কে ঘিরেও নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা তেমন কোন জোড়ালো আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেননি। পরবর্তীতে একই বছরের ৩০ অক্টোবর সেই সাঁজা বেড়ে ১০ বছর হওয়াতে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির আন্দোলন জমেনি। শুধুমাত্র নামকাওয়াস্তেই কর্মসূচি পালন করে গেছেন। তাদের দলীয় প্রধান মাসের পর মাস কারাভোগ করলেও আন্দোলন সংগ্রামে নিস্ক্রিয় থেকে যান নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা। যারা ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলও।

সেই সাথে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সময়ে মামলা, হামলা ও পুলিশি হয়রানির ভয় না থাকায় নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের নেতাকর্মীরা বেশ খোশ মেজাজেই রয়েছেন। তাদের দলীয় প্রধান বেগম খালেদা জিয়া বৃদ্ধ বয়সে দিনের পর কারাগারে কষ্টে দিনযাপন করলেও যুবদলের নেতাকর্মীরা বেশ আনন্দের সহিতই দিন যাপন করে যাচ্ছেন। তারই ধাবাহিকতায় এবার নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণে ও আড়াইহাজার থানা যুবদলের উদ্যোগে নৌ ভ্রমণের আয়োজন করা হয়। আর এই আয়োজনকে তারা বেগম জিয়ার মুক্তি দাবি হিসেবে আখ্যায়িত করার চেষ্টা করছেন।

যার ধারাবাহিকতায় গত ২৯ জুন আড়াইহাজার থানা যুবদলের উদ্যোগে ও জেলা যুবদলের কার্যকরী সদস্য সালাউদ্দিন মোল্লার সার্বিক তত্ত্বাবধানে ঈদ পুনর্মিলনী উপলক্ষে নৌ বিহারের আয়োজন করা হয়। এদিন তারা আড়াইহাজার থানাধীন বিশনন্দী ফেরিঘাট থেকে প্রায় দুশতাধিক যুবদলের নেতাকর্মীদের নিয়ে মেঘনা নদীতে ঘুরে বেড়ান। আর এই নৌ বিহারে জেলা যুবদল ও থানা যুবদলের নেতাকর্মীরা সারাদিনই ভুড়িভোজ, আনন্দ উল্লাস ও নেচে গেয়ে কাটান। কিন্তু দিনশেষে তাদের এই আনন্দ উল্লাসকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবী হিসেবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছেন।

তবে যুবদলের নেতাকর্মীদের এই কথিত মুক্তি দাবী বিএনপির তৃণমূলে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। তাদের মতে, এ কেমন মুক্তি দাবী। আমাদের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার দিনের পর দিন কারাগারের অন্ধকারে দিন যাপন করছেন। আর তারা কিনা আনন্দ উল্লাসের মাধ্যমে বেগম জিয়ার মুক্তি দাবী কবেন। এটা যুবদলের নেতাকর্মীদের নিতন্তাই স্ট্যান্টবাজি। এছাড়া অন্য কিছু নয়। এর মাধ্যমে তারা বেগম খালেদা মুক্তি দাবীকে হাসি ঠাট্টায় পরিণত করছেন।

এদিকে তাদের এই কর্মসূচি সম্পর্কে অবগত নন আড়াইহাজার থানা যুবদলের সভাপতি জুয়েল আহম্মেদ ও সাধারণ সম্পাদক আজহারুল ইসলাম লাভলু।

সভাপতি জুয়েল আহম্মেদ নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, আড়াইহাজার থানা যুবদলের ওই নৌ বিহারের সাথে কোন সম্পৃক্ততা নেই। জেলা যুবদলের একটি অংশের নেতাকর্মীরা থানা আড়াইহাজর থানা যুবদলের নাম দিয়ে আড়াইহাজার যুবদলকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও