খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে নেই মহানগর বিএনপির বেশীরভাগ নেতা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৫ পিএম, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে নেই মহানগর বিএনপির বেশীরভাগ নেতা

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির মানববন্ধনে পদধারী বেশীরভাগ নেই উপস্থিত ছিলেন না। মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আবুল কালাম দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ আর সেক্রেটারী এটিএম কামাল রয়েছেন প্রবাসে।

এ অবস্থায় ১২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবারের কর্মসূচীতে মহানগর বিএনপির পদধারী মাত্র ৫ জন নেতা উপস্থিত ছিলেন। বিভিন্ন অংগ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী মিলিয়ে উপস্থিত ছিলেন ২০ থেকে ২৫ জন। অথচ মহানগর বিএনপির আংশিক কমিটিতে পদধারী নেতাই রয়েছেন ২৩ জন। প্রস্তাবিত কমিটিতে রয়েছেন ১৫১ জন নেতা।

জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্র”য়ারী নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাবেক তিনবারের এমপি আবুল কালামকে সভাপতি ও বিলুপ্ত নগর বিএনপির সেক্রেটারী এটিএম কামালকে সেক্রেটারী করে মহানগর বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। পরদিন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির ২৩ সদস্যের আংশিক কমিটির তালিকা প্রকাশ করা হয়। ২৩ সদস্যের কমিটিতে সহ সভাপতি হলেন অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, নুরুল ইসলাম সরদার, বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল, বন্দর থানা বিএনপির সভাপতি হাজী নূরউদ্দিন, বিলুপ্ত নগর কমিটির সহ সভাপতি জাকির হোসেন, আইনজীবী নেতা সরকার হুমায়ূন কবির, ফখরুল ইসলাম মজনু, বেগম আয়েশা আক্তার। যুগ্ম সম্পাদক ২জন হলেন আজহারুল ইসলাম বুলবুল ও মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। সাংগঠনিক সম্পাদক তিনজন হলেন আবদুস সবুর খান সেন্টু, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু ও আবু আল ইউসুফ খান টিপু। সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন, মনিরুল ইসলাম সজল, মাহাবুবউল্লাহ তপন। কোষাধ্যক্ষ মনির”জ্জামান মনির। দপ্তর সম্পাদক হান্নান সরকার ও প্রচার সম্পাদক সুরুজ্জামান। এ কমিটিকে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ১৫১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে ওই কমিটি ঘোষণার পরেই মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদকের পদ থেকে পদত্যাগের আবেদন কেন্দ্রে পাঠান কাউন্সিলর খোরশেদ। অপরদিকে প্রচার সম্পাদক সুরুজ্জামান বিদ্রোহী গ্রুপে ছিলেন শুরু থেকে।

পরবর্তীতে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানকে কেন্দ্র করে মহানগর বিএনপিতে বিভাজন আরো বাড়ে। বর্তমানে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান পৃথকভাবে মহানগর বিএনপির কর্মসূচী পালন করছেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির মানববন্ধনে পদধারী নেতা মাত্র ৫ জন উপস্থিত ছিলেন। তারা হলেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি জাকির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আল ইউসুফ খান টিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন, কোষাধক্ষ মনিরুজ্জামান মনির। বাকী যারা ছিলেন তারা স্বেচ্ছাসেবক দল ও শ্রমিক দলের পদধারী নেতা। অথচ মহানগর বিএনপির প্রস্তাবিত কমিটিতে পদধারী নেতাই রয়েছেন ১৫১ জন। এছাড়া সহযোগী সংগঠনগুলোর প্রতিটিতেও শতাধিক পদধারী নেতা রয়েছেন। অথচ খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে মাসের পর মাস কোন কর্মসূচীতে তাদের দেখা মেলেনা।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও