অস্বস্তিতে আওয়ামী লীগ স্বস্তিতে বিএনপি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৮ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রবিবার

অস্বস্তিতে আওয়ামী লীগ স্বস্তিতে বিএনপি

টানা তিন মেয়াদ ধরে ক্ষমতায় রয়েছে দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ। একই সাথে টানা তিন মেয়াদ ধরেই ক্ষমতার বাইরে রয়েছে দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক বিএনপি। আর এই ক্ষমতার বাইরে থাকাবস্থায় বিএনপির নেতাকর্মীরা হামলা মামলা ও বিভিন্ন রকমের হয়রানীতে দিশেহারা হয়ে পড়েন নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা। তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সময়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা বেশ স্বস্তিতে রয়েছেন।

বিপরীতে ক্ষমতায় থেকেও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সময়ে একের পর এক ঘটনায় অস্বস্তিতে রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। দলীয় কর্মকান্ড থেকে শুরু করে কোন কিছুতেই নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা স্বস্তি পাচ্ছেন না। সেই সাথে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীও তাদেরকে স্বস্তি দিচ্ছেন না।

জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষে গত ১০ জানুয়ারী নারায়ণগঞ্জ চাষাঢ়া শহীদ মিনারে এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ চাঁদাবাজি, ভূমিদুস্য, মাদক ব্যবসা ও ফুটপাথ দখলমুক্তকরণ সহ বিভিন্ন ইস্যুতে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দিয়ে মাঠে নামেন। নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদের ওই ঘোষণার পরই গত ২০ জানুয়ারী কুতুবপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক মীর হোসেন মীরুকে গ্রেফতার করা হয়।

এরপর গত ১৭ ফেব্রুয়ারী মসজিদ কমিটি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ১৮ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান মুন্না এবং বর্তমান কাউন্সিলর কবির হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে একটি অনুষ্ঠানে পুলিশের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে গত ২৯ মার্চ নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সমর্থিত নেতা হিসেবে পরিচিত নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ নিজামের বিরুদ্ধে জিডি করেন ফতুল্লা মডেল থানার ওসি শাহ মো: মঞ্জুর কাদের। যে জিডির জন্য এখনও শাহ নিজামকে অনেক হিসেব নিকেশ করে চলতে হচ্ছে।

এরপর গত ১৮ এপ্রিল নগরীর পাইকপাড়া থেকে একটি চাঁদাবাজি মামলায় ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল করিম বাবুকে গ্রেফতার করা হয়। যিনি নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের সমর্থিত হিসেবে পরিচিত। আব্দুল করিম বাবুকে গ্রেফতারের পরপরই তার বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা দায়ের করা হয়। আর এসকল মামলায় তাকে অনেকদিন কারাবরণ করতে হয়।

এরা সকলেই জামিনে বের হয়ে যাওয়ায় আওয়মী লীগের নেতাকর্মীরা মনে করেছিলেন এবার হয়ত পুলিশ কিছুটা শান্ত হয়ে গেছে। কিন্তু কয়েকদিন যেতে না যেতেই এবার নতুন করে পুলিশের জালে আটকা পড়েন ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফ উদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধান যিনি নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের একজন সক্রিয় নেতা ছিলেন। যার ফলস্বরূপ তিনি মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন। কিন্তু তাকেও মাদক মামলায় গ্রেফতার হতে হলো। গত ১ আগস্ট শহরের নবীগঞ্জ খেয়াঘাট এলাকা থেকে ফেনসিডিল সহ তাকে আটক করা হয়।

সবশেষ গত ২০ জুলাই সিদ্ধিরগঞ্জে গণপিটুনিতে একজন নিহতের ঘটনায়ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের জড়িয়ে মামলা দায়ের করা হয়। যেই মামলার গ্লানি এখনও বয়ে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

তবে এসকল ঝামেলা থেকেও জেলা পর্যায়ের নেতারা দূরে থাকলেও তাদেরকে অস্বস্তিতে পরতে হয়েছে যুবলীগ নেতা জি কে শামীমের গ্রেফতারের ঘটনায়। কারণ জি কে শামীমের সাথে সম্পর্ক ছিল নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদলের। জি কে শামীমে সাথে তাদের সম্পর্কের বিষয়টি অস্বীকার করলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একসাথে তাদের ছবি ভাইরাল হয়ে যায়। ফলে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতারাও আতঙ্কে রয়েছেন। আর এসকল বিষয় নিয়ে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ক্ষমতায় থেকেও অস্বস্তিতে রয়েছেন।

অন্যদিকে গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সময়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি নেতাদের তেমন একটা মামলা হামলার মুখোমুখি হতে হচ্ছে না। সেই সাথে ক্ষমতাসীনদের চোখ রাঙানিও আগের চেয়ে অনেক কমে গেছে। ফলে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা নির্বাচন পরবর্তী সময়ে খোশ মেজাজেই রয়েছেন। অথচ বিগত দিনগুলোতে একের পর এক রাজনৈতিক হয়রানীমূলক মামলায় বিএনপির নেতাকর্মীরা ঘরছাড়া হয়ে পড়েছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে আনা হয় গায়েবী ককটেল কিংবা প্রেট্টোল বোমা বিস্ফোরনের অভিযোগ। যেসব মামলায় আসামী হচ্ছেন প্রবাসী কিংবা মৃতব্যক্তিরা। আর এসব মামলায় ফেরারী আসামী হয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের দিন যাপন করতে হচ্ছে। তবে এসকল সমস্যা বাইরে গিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীরা বেশ খোশ মেজাজেই রয়েছেন। এখন আর তাদের বিরুদ্ধে গায়েবী অভিযোগও আর আনা হয় না। ফলে বর্তমান সময়ে ক্ষমতার বাইরে থেকেও তারা স্বস্তিতে রয়েছেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও