আদালতপাড়ায় বিএনপির রাজনীতিতে উজ্জীবিত তৈমূরপন্থী আইনজীবীরা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৩ পিএম, ৯ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার

আদালতপাড়ায় বিএনপির রাজনীতিতে উজ্জীবিত তৈমূরপন্থী আইনজীবীরা

গত ৩ অক্টোবর জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আর এই আহবায়ক কমিটির শীর্ষ পদে রয়েছেন অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের ঘনিষ্টজন হিসেবে পরিচিত আইনজীবীরা। সেই সাথে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারও এই কমিটির দ্বিতীয় সদস্য হিসেবে রয়েছেন। আর এই খবরে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া বিএনপির রাজনীতিতে ফের উজ্জীবিত হয়ে উঠছেন হেভিওয়েট আইনজীবী নেতা ও বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিত আইনজীবীরা। কারণ সাম্প্রতিক সময়ে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া রাজনীেিত কিছুটা সংকীর্ণ হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু এখন আর সেই অবস্থা থাকছে না।

জানা যায়, অনেক দিন ধরেই নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া বিএনপির রাজনীতিতে হেভিওয়েট আইনজীবী নেতা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিত আইনজীবীরা সংকীর্ণতার মধ্যে ছিলেন। অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের এক সময়ের জুনিয়র অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের কারণে তার সমর্থিত আইনজীবীরা নারায়নগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কমিটিতে অবমূল্যায়িত হতেন। ফলে একজন হেভিওয়েট নেতার অনুসারী হয়েও তাদেরকে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ার রাজনীতিতে কর্তৃত্বহীনতায় থাকতে হতো।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক নেতাদের ম্যানেজ করে চলতেন। যেখানে বিএনপির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার তেমন একটা সুবিধা করতে পারতেন না। ফলে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে সমাঝোতা করে তার সমর্থিত আইনজীবীদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী ফোরামের কমিটিও নিয়ে এসেছিলেন।

২০১৭ সালের ৭ জুন অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান তার সমর্থিত আইনজীবী অ্যাডভোকেট সরকার হুমায়ুন কবিরকে সভাপতি ও অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লাকে সাধারণ সম্পাদক ২৮৭ জনের কমিটির অনুমোদন নিয়ে আসেন। যেখানে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিত আইনজীবীদের অবমূল্যায়িত করা হয়। যা সহজেই মেনে নিতে পারছিলেন না আইনজীবীরা।

ফলে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিত আইনজীবীরা নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইজীবী ফোরামের কমিটিকে ‘অগণতান্ত্রিক ও বে-আইনী’ আখ্যায়িত করে তা বাতিলের দাবি জানিয়েছিলেন। সেই সাথে ওই কমিটিকে প্রত্যাখান করে ২৮৭ জনের মধ্যে ১৪০ জন পদত্যাগ করেছিলেন। তারপরেও নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালত পাড়ায় সেই কমিটির কার্যক্রম চলে আসছিল। পরবর্তীতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপে জাতীয়তাবদী আইনজীবী ফোরামের সকল জেলা কমিটি বাতিল করা হয়। যার ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবদী আইনজীবী ফোরামের কমিটিও বাতিল হয়ে যায়।

এদিকে গত ৩ অক্টোবর জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেনকে আহ্বায়ক এবং সাবেক ছাত্রনেতা ও আইনজীবী ফজলুর রহমানকে সদস্য সচিব করে ১৭৯ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই আহ্বায়ক কমিটির ২য় সদস্য হিসেবে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারও রয়েছেন।

একই সাথে আর এই কমিটির শীর্ষ পদে থাকা যারা রয়েছেন তারা সকলেই অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের ঘনিষ্টজন হিসেবে পরিচিত। সে হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আগামী কমিটিতে অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিতরাই আসবেন বলে তারা ধরে নিচ্ছেন। সেই সাথে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়া বিএনপির রাজনীতিতে দলীয় অনেক কিছুই অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিতরাই নিয়ন্ত্রণ করবেন। আইনজীবী সংক্রান্ত কোন কমিটি আসলেও তাদের অধীনেই আসবে।

বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থিত আইনজীবীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হিসেবে রয়েছেন অ্যাডভোকেট আব্দুল ভারী ভূইয়া, অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ খান ভাষানী, অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান মোল্লা, অ্যাডভোকেট সামসুজ্জামান খোকা, অ্যাডভোকেট আজিজ আল মামুন, সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক অ্যাডভোকেট আশরাফুল আলম সিরাজী রাসেল, অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপলু ও অ্যাডভোকেট নুরুল আমিন মাসুম সহ আরও অনেকেই।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও