দুর্বল বিএনপিকে কড়া শাসায় পুলিশ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৩০ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৯ শনিবার

দুর্বল বিএনপিকে কড়া শাসায় পুলিশ

দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল হয়েও টানা তিন মেয়াদ ধরে ক্ষমতার বাইরে রয়েছে বিএনপি। আর এই দীর্ঘ মেয়াদে ক্ষমতায় থেকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি একটি দুর্বল সংগঠনে পরিণত হয়েছে। তারা এতটাই দুর্বল সংগঠনে পরিণত হয়েছেন পুলিশের অনেক জুনিয়র অফিসাররাও তাদেরকে সামান্যতম সম্মান দিয়ে কথা বলেন না। পুলিশের ইচ্ছামতো নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদেরকে শাসিয়ে যান। পুলিশ যেভাবে বলেন মহানগর বিএনপির নেতাদেরও ঠিক সেভাবেই চলতে হয়।

জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে সঙ্গে আওয়ামী লীগ সরকারের চুক্তিকে দেশের `স্বার্থবিরোধী` উল্লেখ করে তা বাতিল দাবি এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। কর্মসূচি অনুযায়ী ১২ অক্টোবর শনিবার ঢাকাসহ দেশের সব মহানগর এবং ১৩ অক্টোবর রোববার দেশের সব জেলা সদরে জনসমাবেশ করার ঘোষণা দেয় কেন্দ্রীয় বিএনপি।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে এদিন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির ও তাদের সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের গলিতে সমবেত হয়েছিলেন। নেতাকর্মীদের উপস্থিতিও ছিল উল্লেখযোগ্য।

সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আবুল কাউসার আশা ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদ। এদের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের তিনবারের সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন। সেই সাথে বাকী নেতারাও বিএনপির সিনিয়র পর্যায়ে নেতা। অথচ এই সিনিয়র পর্যায়ের নেতাদের সাথে পুলিশের নিম্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আচরণ ছিল অত্যন্ত রুঢ়। যা তাদের সম্মানে রীতিমতো আঘাত হানে।

নেতাকর্মীদের সূত্রে জানা যায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে এদিন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির ও তাদের সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের গলিতে সমবেত হয়েছিলেন। নেতাকর্মীরা ব্যানার নিয়ে দাঁড়িয়েও ছিলেন জনসমাবেশের লক্ষ্যে। এরই মধ্যে ঘটনাস্থলে এসে হাজির হয় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক জয়নাল আবেদীনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম।

পুলিশ এসেই নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির নেতাদের ধমকি দিয়ে বলেন, দুই মিনিটের মধ্যেই তাদের জনসমাবেশ শেষ করতে হবে। মহানগর বিএনপির নেতাকর্মী কিছুক্ষণ থাকতে চাইলে পুলিশ তাদের বাধা হয়ে দাঁড়ান। তাদের কাছ থেকে ব্যনার কেড়ে নেয়া হয়। পুলিশ নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আবুল কাউসার আশা ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদকে শাসিয়ে দেন।

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, আমরা এসেছিলাম এখানে দেশের মানুষের পক্ষে কথা বলার জন্য। দেশবিরোধী চুক্তি ও বুয়েটের ছাত্র আবরার হত্যা প্রতিবাদ জানানোর জন্য। আমরা শান্তিপূর্ণভাবেই দলীয় কর্মসূচি পালন করতে চয়েছিলাম। কিন্তু আমাদেরকে কর্মসূচি পালন করতে দেয়া হয়নি।

তবে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন জানান, আমরা কাউকে বাধা দেইনি, আমরা বক্তব্য দিতে বলেছি, শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচী করতে বলেছি। কর্মসুচী থেকে তাদের কর্মীরাই চলে গেছে, যারা ছিল তারা বক্তব্য দিয়েছে কর্মসুচী করেছে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও