চাষাঢ়ায় মদের বার : হেফাজত ইসলামের সিদ্ধান্ত শুক্রবার

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫১ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার

চাষাঢ়ায় মদের বার : হেফাজত ইসলামের সিদ্ধান্ত শুক্রবার

নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় ভাষা সৈনিক সড়কে প্যারাডাইজ টাওয়ারে মদের বারের ব্যাপারে শুক্রবার সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন হেফাজতে ইসলাম ও ওলামা পরিষদের নেতারা। শুক্রবার ১৮ অক্টোবর সভা করেই এ ব্যাপারে পরবর্তী করণীয় নেওয়া হবে। সেদিন বাদ আছর শহরের ডিআইটি জামে মসজিদে ওই সভা অনুষ্ঠিত হতে পারে। এ নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা চলছে।

তাছাড়া শুক্রবার শহরের চাষাঢ়া বালুর মাঠ মসজিদের জুমআর নামাজের খুতবাতেও এ নিয়ে আলোচনা হতে পারে। ইতোমধ্যে স্থানীয় এ মদের বার নিয়ে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা আবদুল আউয়াল বলেছেন, এ ধরনের কোন কিছু গড়ে উঠলে নারায়ণগঞ্জবাসী সেটা প্রতিহত করবে। এ নারায়ণগঞ্জবাসীই তাদের এক সময়ের কলংক টানবাজার পতিতাপল্লীর বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিল। তারা আবারো আন্দোলন করবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের সমন্বয়ক মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান বলেন, নারায়ণগঞ্জের তৌহিদী জনতা এ ধরনের মদের আস্তানা গড়ে তুলতে দিবে না প্রকাশ্যে। আমরা অচিরেই এর বিরুদ্ধে রাজপথে নামবো। এর বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন হবে। শরীরে রক্তবিন্দু থাকতে নারায়ণগঞ্জকে অপবিত্র হতে দিব না।

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহাবুবুর রহমান মাসুম বলেন ‘নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের পেছনে মদের বারের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে শুনেছি। এটা সত্যিকার অর্থে কিনা জানি না। আদৌ লাইসেন্স আছে নাকি নাই সেটা বড় কথা না। বড় কথা হলো এখনো কোন মদের বার থাকতে পারবে না। প্রশাসন যদি ব্যবস্থা না দেয় তাহলে সাংবাদিকেরাই সেটা গুড়িয়ে দিবে।’

জানা গেছে, শহরের ভাষা সৈনিক সড়ক যেটা বালুরমাট হিসেবে পরিচিত সেখানে রয়েছে প্যারাইজ ক্যাবলস গ্রুপের মালিকানাধীন বহুতল ভবন। এ ভবনের ৯,১০ ও ১১ তলায় ১৮ হাজার বর্গফুটের ফ্লোর ভাড়া নিয়েছেন রাজধানী সবুজবাগ এলাকার রাশেদ খান। আর প্যারাডাইজের পক্ষে ভাড়া দিয়েছেন মোবারক হোসেন।

এ সংক্রান্ত একটি চুক্তিপত্র এসে পৌছেছে এ প্রতিবেদকের হাতে। সেখানে রাশেদ খানের পদবী দেওয়া আছে ‘ব্লু পিয়ার রেস্টুরেন্ট’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। এ নামেই বসবে বার। ১৮ হাজার বর্গফুট আয়তনের তিনটি ফ্লোরের ভাড়া প্রতি মাসে ৫ লাখ টাকা। আর অগ্রীম জামানত হিসেবে নেওয়া হয়েছে ৪০ লাখ টাকা। চুক্তির মেয়াদ থাকবে ১০ বছর। এতে তিনজন সাক্ষীর মধ্যে একজন জামতলা এলাকার শাহাদাৎ হোসেন। গত ২০ মে থেকে ১০ বছর মেয়াদী ওই চুক্তির কার্যক্রম শুরু হয়।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও