পেঁয়াজ ইস্যুতে সরব ছিল বিএনপির নারী নেত্রীরা, হার্ডলাইনে পুলিশ

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১৪ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৯ সোমবার

পেঁয়াজ ইস্যুতে সরব ছিল বিএনপির নারী নেত্রীরা, হার্ডলাইনে পুলিশ

পেঁয়াজ সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ও কৃষকদের পণ্যের ন্যায্য মূল্যের দাবিতে বিএনপির কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি প্রতিবাদ সমাবেশ করতে দেয়নি নারায়ণগঞ্জ পুলিশ।

কর্মসূচি পালনে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের আশে পাশে যেখানেই বিএনপির নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছে সেখান থেকেই পুলিশ হার্ডলাইনে গিয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে তাড়িয়ে দিয়েছে। তাড়িয়ে দেয়ার পরও দফায় দফায় বিএনপির নেতাকর্মীরা আবার কর্মসূচি স্থলে ফিরে আসার চেষ্টা চালিয়ে যায়। এসময় পুলিশ কর্মকর্তাদের অনেকটা বেকায়দায় পড়তে দেখা যায় নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে। পরবর্তিতে পুলিশ লাঠিচার্জ ও আটক করে বিএনপির নেতাকর্মীদের সেখান থেকে ছত্রভঙ্গ করে।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) পেঁয়াজ সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রবের মূল্য বৃদ্ধির জন্য বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহনের জন্য দুপুর থেকে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের আশে পাশে জড়ো হতে থাকে জেলা ও মহানগরের নেতাকর্মীরা। কর্মসূচিতে মহানগর মহিলা দলের নেতাকর্মীদেরও উপস্থিতিও লক্ষ্য করা যায়। বিএনপির কর্মসূচি উপলক্ষে সকাল থেকেই বিপুল সংখ্যক পুলিশ অবস্থান নেয় প্রেস ক্লাব চত্বরের আশেপাশের এলাকায়।

পূর্ব ঘোষনা অনুযায়ি নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কর্মসূচি বিকাল তিনটায় এবং এর পরপরই মহানগর বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশ হওয়ার কথা। কাছাকাছি সময়ে জেলা ও মহানগর বিএনপির কর্মসূচি থাকায় কর্মসূচি স্থলে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী জড়ো হতে থাকে। বিভিন্ন দিক দিয়ে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাব চত্বরে একত্রিত হতে থাকে।

জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতকর্মীরা জড়ো হয়ে কর্মসূচি শুরু করার আগেই হার্ডলাইনে যায় পুলিশ। জেলা বিএনপির নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল সমাবশেরে উদ্দেশ্যে প্রেসক্লাবের গলিতে প্রবেশের চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়। মহানগর বিএনপির সমাবেশে যোগ দেয়ার জন্য আগে থেকেই সেখানে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। পুলিশ তাদেরও সেখান থেকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

এদিকে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গের পর নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম ও সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল নেতাকর্মীদের নিয়ে কর্মসূচি পালনে আবার প্রেসক্লাব চত্বরে আসলে তাদের সাথে থাকা মহানগর বিএনপির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শাহরিয়ার চৌধুরী ইমনকে আটক করে সদর থানা পুলিশ। এসময় পুলিশের লাঞ্ছনার শিকার হন মহানগর মহিলা দলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ডলি আহমেদ।

এ নিয়ে এটিএম কামাল বলেন, আমারা আমাদের সাংবিধানিক অধিকার নিয়ে প্রেস ক্লাবের সামনে দাঁড়িয়েছিলাম পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণে প্রতিবাদ সমাবেশ করতে। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনকালে পুলিশ আমাদের বাধা দিয়েছে। সেখান থেকে পুলিশ আমাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে কোন কারণ ছাড়াই আমাদের একজন নেতাকে ধরে নিয়ে গেছে এবং একজন নারী নেত্রীকে লাঞ্ছিত করেছে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ বলেন, এটি সরকার পতনের কোনো কর্মসূচি নয়। আজ দেশের নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষের অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটছে। জনদাবির কর্মসূচিত নিয়ে আমরা এসেছিলাম কিন্তু সরকারের পেটোয়া বাহিনী সেটিও আমাদের করতে দেয় নি।

সদর মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) আব্দুল হাই বলেন, জননিরাপত্তা ব্যাঘাতের প্রস্তুতির সময় আমরা একজনকে আটক করেছি। জনসাধারনের চলাচলে পথে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে সমাবেশের চেষ্টা করায় তাদেরকে আমরা সরিয়ে দিয়েছি।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও