ইকবাল পারভেজকে দুষলেন এমপি বাবু

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫০ পিএম, ২৭ নভেম্বর ২০১৯ বুধবার

ইকবাল পারভেজকে দুষলেন এমপি বাবু

নিজের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল পারভেজ জড়িত দাবী করেছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের (আড়াইহাজার) সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানী ঢাকার রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে বাবু এ দাবী করেন।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর অনুসারি হিসেবে পরিচিতরা ২৬ নভেম্বর নারায়াণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজেকে ‘দলের ভাবমূর্তি নষ্টকারী ও অনপ্রবেশকারী দুর্নীতিবাজ’ আখ্যা দিয়ে দলীয় পদ থেকে বহিস্কারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেন।

তবে সেখানে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের কোন নেতা উপস্থিত ছিলেন না। সেই সাথে জেলা আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতাদের মধ্যে দুই একজন ছাড়া আর কেউ উপস্থিত ছিলেন না। যারা ওই সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছিলেন তারা প্রায় সবাই নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবুর অনুসারী হিসেবে পরিচিত। যার সূত্র ধরে আড়াইহাজার আওয়ামী লীগের তৃণমূলে এই সংবাদ সম্মেলন ও তাদের দাবী নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে বুধবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাবু বলেন, তার বিরুদ্ধে এসব চক্রান্ত করছে ওমর ফারুক চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন যুবলীগের কমিটির নেতা ইকবাল পারভেজ। যিনি নিজে দুদকের মামলায় ইতোমধ্যেই সাজাপ্রাপ্ত।

লিখিত বক্তব্যে বলেন, স্কুল পর্যায় থেকেই আমি ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দায়িত্ব পালন শেষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের দায়িত্ব পালন করি। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন শেষে জামায়াত-বিএনপির আমলে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হয়ে অসংখ্য মিথ্যা মামলায় দীর্ঘ নয় মাস কারাবাস করেছি। তারপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় আমি ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখাসহ দেশব্যাপী ছাত্রলীগকে আরও সুসংগঠিত করি।

তিনি বলেন, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দেশের ইতিহাসের অন্যতম নিকৃষ্টতম গ্রেনেড হামলার শিকার হয়ে সারা শরীরে গ্রেনেডের অসংখ্য স্প্রিন্টার বয়ে বেড়াচ্ছি। রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম করে আল্লাহর রহমতে কারাবন্দি শেখ হাসিনার মুক্তির মধ্য দিয়ে ২০০৮, ২০১৪ ও ২০১৮ সালে জনগণের ভোটে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হই।

এমপি বাবু বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দুর্নীতিবিরোধী শুদ্ধি অভিযান একটি সময়পযোগী সাহসী উদ্যোগ। যা ইতোমধ্যে সর্বমহলে প্রশংসিত। এই শুদ্ধি অভিযান চলাকালে হঠাৎ করে কিছু ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় আমাকে নিয়ে অপ্রাসঙ্গিক সংবাদ প্রকাশ করে। যার সাথে আমার কোনো সংশ্লিষ্টতাই নেই। টেন্ডারবাজি, দখলবাজি, ক্যাসিনো, দুর্নীতি যা আমার জন্য কল্পনাতীত। এ রকম কিছু অপকর্মের সাথে আমাকে সম্পৃক্ত করে সংবাদ প্রকাশ করে আমার ব্যক্তিগত সম্মানহানি হয়েছে এবং আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা করা হয়েছে।

জাতীয় নির্বাচন ও দলীয় সম্মেলনের আগেই এসব ষড়যন্ত্রকারীরা তার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমার সাংগঠনিক কার্যক্রমে ঈর্ষান্বিত হয়ে আওয়ামী রাজনীতিতে অনুপ্রবেশকারীরা ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করার আশায় আমার উন্নয়ন ও সাংগঠনিক কার্যক্রম সহ্য করতে না পেরে আমার বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় অসত্য সংবাদ প্রকাশ করানোর পাশাপাশি সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সংস্থায় নামে-বেনামে অসত্য অভিযোগ দায়ের করে দেশ ও জাতির কাছে আমাকে ছোট করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৬ সালে জনৈক বারেক আলী নামের এক ব্যক্তি আমার বিরুদ্ধে দুদকে একটি অভিযোগ দায়ের করে। দীর্ঘ দুই বছর অনুসন্ধান ও তদন্ত করে দুদক আমার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগের সত্যতা পায়নি। পরে সেটি থেকে আমি অব্যাহতি পাই।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও