বিএনপিকে কর্মসূচি পালনের সুযোগ করে দিলেন আওয়ামী লীগের ১৭ জন!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৩৩ পিএম, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

বিএনপিকে কর্মসূচি পালনের সুযোগ করে দিলেন আওয়ামী লীগের ১৭ জন!

পূর্ব থেকেই নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় চাউর ছিল বেগম খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা সরব থাকবেন। আর তাই নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহসীন মিয়ার তৎপরতায় যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে এদিন সকাল থেকেই প্রস্তুত ছিলেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। বিএনপি পন্থী আইনজীবীরা কোথাও একসাথে দাঁড়াতেই পারতে পারছিলেন না।

তবে এমনতাবস্থায় তাদেরকে কর্মসূচি পালনের সুযোগ করে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের কয়েকজন আইনজীবী এমন অভিযোগও উঠেছে। পুলিশের কোনো বাধা ছাড়াই অনেকটা সরকারি দলের আইনজীবীদের মহরায় বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা সমাবেশ ও মিছিল করেছেন।

জানা যায়, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন প্রশ্নে আপিল বিভাগের শুনানি ছিল ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার।

এর আগে গত ৫ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট দাখিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পক্ষে সময় চান অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আদালত ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে মেডিকেল রিপোর্ট দুটি দাখিলের নির্দেশ দেন। আর শুনানির দিন ঠিক করে দেন ১২ ডিসেম্বর।

যার ধারাবাহিকতায় ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বেগম খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিকে কেন্দ্র করে আাদলতপাড়া কিছুটা উত্তপ্ত ছিল। খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে কর্মসূচি পালনের জন্য প্রস্তুত ছিলেন বিএনপি আইনজীবীরা। কিন্তু জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস জুয়েলের তৎপরতায় সকাল থেকেই আদালতপাড়ায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য প্রস্তুত ছিলেন। ফলে বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা কর্মসূচি পালনের জন্য তেমন একটা সুবিধা করতে পারছিলেন না। পুলিশের ভয়ে তারা উৎকণ্ঠিত ছিলেন।

এরই মধ্যে আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবী অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু সহ ১৫ থেকে ১৭ জন আইনজীবী মিলে গত ৫ ডিসেম্বর আদালত কক্ষে হট্টগোলের প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। পরে তাদের সাথে অ্যাডভোকেট খোকন সাহা সহ আরও কয়েকজন যোগ দেন। তাদের এই মিছিলটি আদালতপাড়ায় চক্কর দিতেই বিএনপিপন্থী আইনজীবীরাও কর্মসূচি পালনে দাঁড়িয়ে যান।

একপর্যায়ে আওয়ামী লীগপন্থী আইনজীবীদের সামনেই বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা কর্মসূচি পালন করেন। পুলিশ তাদেরকে বাধা দেয়ার কোনো সুযোগও পায়নি। বাধা দিতে গেলে পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ হতো। যদিও বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের কর্মসূচি পালন করতে দেয়ার কোনো ইচ্ছাই ছিল না পুলিশের। কিন্তু আওয়ামী লীগ কয়েকজন আইনজীবীদের তাৎক্ষণিক কর্মসূচি বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের কর্মসূচি পালনের সুযোগ করে দিল।

তাদের এই তাৎক্ষণিক কর্মসূচির বাইরে থাকা আওয়ামী লীগ পন্থী কয়েকজন আইনজীবীদের কথা বলে জানা গেছে, আমাদের ধারণার মধ্যেই ছিল বিএনপির আইনজীবীরা কর্মসূচি পালন করতে পারেন। এইজন্য আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে আগে থেকেই অবহিত করেছিলাম এবং তারাও বিষয়টি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নজরে দিয়েছিলেন। ফলে এদিন সকাল থেকেই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য প্রস্তুত ছিল। বিএনপি পন্থী আইনজীরা সকাল থেকে চেষ্টা করেও কর্মসূচি পালনের জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু পুলিশের কারণে তারা কর্মসূচি পালন করতে পারছিলেন না।

তবে বিএনপির আইনজীবীদের কর্মসূচি পালনের জন্য সুযোগ করে দিয়েছেন আমাদের কয়েকজন আইনজীবী। তাদের অতি উৎসাহী আচরণের কারণেই পুলিশ বিএনপির আইনজীবীদের কিছু বলতে পারেনি। আর তারা সেই সুযোগে বুক ফুলিয়েই কর্মসূচি পালন করেছেন। অন্যথায় বিএনপির আইনজীবী কর্মসূচি পালন তো দূরের কথা একসাথে দাঁড়াতেই পারতেন না। বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করতো আমরা সেটাও প্রতিহত করার জন্য প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু আমাদের আইনজীবীরাই বিএনপির আইনজীবীদের কর্মসূচি পালনের জন্য সুযোগ করে দিলাম, যা আমাদের লজ্জাজনক বটে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও