পুলিশের ধাক্কায় টিকতে পারলো না বিএনপি

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫৩ পিএম, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ রবিবার

পুলিশের ধাক্কায় টিকতে পারলো না বিএনপি

কারাবন্দী খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির সমাবেশ পুলিশ বাধায় পন্ড হয়ে গেছে। কর্মসূচির ব্যানার কেড়ে নিয়ে নেতাকর্মীদের ধাক্কিয়ে বের করে দেয় পুলিশ। এমনকি গণমাধ্যমের কাছে বক্তব্য রাখতে পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। পুলিশ এমন ব্যবহারে তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানিয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। আর পুলিশ বলছে, বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে তারা নেতাকর্মীদের তাঁড়িয়ে দেয়।

১৫ ডিসেম্বর রোববার বিকেল ৩টায় শহরের চাষাঢ়া বালুরমাঠ এলাকায় জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে পৃথক কর্মসূচিতে ওই ঘটনা ঘটে। তবে এসময় কাউকে আটক করেনি পুলিশ।

জানা গেছে, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসকে ঘীরে দলীয় প্রধান কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় ভাবে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। যার ধারাবাহিকতায় বিকেল ৩টা থেকে নেতাকর্মীরা একেক করে চাষাঢ়া প্রেসক্লাবের পাশে বালুর মাঠে জড়ো হতে থাকে।

কর্মসূচি ৩টায় ঘোষণা করলেও আধা ঘণ্টার পর নেতাকর্মীদের উপস্থিতি বাড়তে থাকে। আধা ঘণ্টা আগে পরে একই জায়গায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির কর্মসূচি থাকালেও উভয় কমিটির লোকজন একই সময় উপস্থিত হন।

সেক্রেটারী এটিএম কামালের নেতৃত্বে মহানগর বিএনপির লোকজন ব্যানার নিয়ে প্যারাডাইজ ক্যাসেলের সামনে দাঁড়িয়ে যায়। অন্য দিকে সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন শিকদার ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সায়েম সহ কয়েকজন নেতাকর্মী নির্মাণাধীন মডার্ণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে অবস্থান করে।

সভাপতি ও সেক্রেটারী অনুষ্ঠান স্থলে আসলে কর্মসূচির কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা থাকালেও এর আগেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে পুলিশ। নেতাকর্মীদের চারদিক থেকে ঘিরে ধাক্কাতে শুরু করে পুলিশ। কর্মসূচি শুরু হয়নি শুধু মাত্র অবস্থান করছেন এমনকি কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা করবেন না নেতাকর্মীরা পুলিশকে এমন আশ্বাস দিলেও কোন কাজ হয়নি। বরং মারধর ও গ্রেপ্তারের ভয় দেখিয়ে ধাক্কা দিতে দিতে বের করে দেয়।

অন্যদিকে জেলা বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে এমন ব্যবহার দেখে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে শুরু করেন। পরে পুলিশ তাদের উপর চড়াও হয়ে প্রথমে ব্যানার কেড়ে নেয়। মহানগর বিএনপির নেতাকর্মীদেরও মারধর ও গ্রেপ্তারের ভয় দেখানো হয়। তাতেও নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকালে ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশ ধাওয়া দেয়। এতে নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

পরে কয়েকজন নেতাকর্মী পুলিশের বাধার পরও সভাপতি সেক্রেটারীর জন্য অপেক্ষা করলে পুলিশ তাদের ধাক্কা দিতে দিতে শান্তনা মার্কেট পর্যন্ত নিয়ে যায়।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক আব্দুল হাই বলেন, ‘রাস্তায় যানজট সৃষ্টি না করতে পারে এবং কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি যাতে না করতে পারে সেজন্য তাদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখান থেকে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।’

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে তারা যে আন্দোলন করছেন সেটার কোন মানে হয় না। কারণ খালেদা জিয়ার মুক্তি পাবেন আইনী ভাবে। এ বিষয়ে আদালত রায় দিবেন। এ নিয়ে রাস্তায় বিশৃঙ্খলা কিংবা যানজট সৃষ্টি করতে পারে না।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও