এক দিন সক্রিয় হয়েই মামলার আসামী কাজি মনিরুজ্জামান

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৫২ পিএম, ২২ ডিসেম্বর ২০১৯ রবিবার

এক দিন সক্রিয় হয়েই মামলার আসামী কাজি মনিরুজ্জামান

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কাজি মনিরুজ্জামান পুরো বছর জুড়ে ছিল নিষ্ক্রিয়। পুরো বছরের মধ্যে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে মাত্র একদিন সক্রিয় হয়েছেন এই নেতা। সক্রিয় হয়েই মামলার আসামী হয়েছেন। বিজয় দিবসে বেগম জিয়ার মুক্তির দাবিতে র‌্যালি বের করে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এতে পুলিশের বাধার মুখে সংঘর্ষ দেখা দেয়। এর ধারাবাহিকতায় বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দেয় পুলিশ। সেই মামলার আসামী হয়েছেন জেলা বিএনপির সভাপতি কাজি মনিরুজ্জামান।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পুলিশি হামলা মামলা ভয়ে কাজি মনিরুজ্জামান দলীয় কর্মসূচিতে যোগদান করেনি। যেকারণে সারা বছর রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় ছিল এই নেতা। তবে এবার সুযোগ বুঝে রাজনীতিতে হাজিরা দিতে এসে মামলার আসামী হয়েছেন। যেকারণে তার শেষ রক্ষা হলনা বলাই চলে। কারণ মামলার কারণে নিষ্ক্রিয় হয়েও সেই মামলাই তার ঘাড়ে এসে পড়লো।

১৬ ডিসেম্বর ছিল মহান বিজয় দিবস। এদিন অন্যান্য সকল সংগঠনের মত বিএনপির নেতাকর্মীরাও এসেছিলেন নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা জানাতে। তবে এই শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি তারা প্রতিটি বিজয় র‍্যালি থেকেই তাদের দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি তুলে স্লোগান দিয়েছেন ও সাথে নিয়েছেন মুক্তির ব্যানার। এতেই বাদ সাধে পুলিশ আর প্রতিটি বিজয় র‍্যালিতে বাধা দিয়ে সেখান থেকে ব্যানার কাড়েন পুলিশ সদস্যরা।

বিএনপির প্রতিটি র‍্যালিই ছিল হাজারো নেতাকর্মীর। আর তাই এত বড় মিছিলগুলো কয়েকজন পুলিশ বাধা দিয়ে আটকে দিচ্ছিল এটি যেন অনেক নেতাকর্মীই মানতে পারছিলেন না। এর মধ্যেই মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক জিয়ার একটি মিছিল ২ নং রেলগেটে আসলে তাদের আটকে দেন সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জয়নাল আবেদীন, আর তাতে তার সাথে কিছুটা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন নেতাকর্মীরা। পরে তিনি অতিরিক্ত পুলিশ এনে নেতাকর্মীদের ধাওয়া দেন। এরপর শহরের বিভিন্ন স্থানেই বিএনপির প্রতিটি মিছিলেই পুলিশের সাথে বাদানুবাদ হয় বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের। আর এতে রাতে মামলা ঠুকে দেয় পুলিশ। মামলায় অভিযোগ আনা হয় অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা, সড়কে প্রতিবন্ধকতা, পুলিশের উপর হামলা ও তাদের অস্ত্র ছিনতাইয়ের চেষ্টার। বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় বিভিন্ন মিছিলে থাকা ১৯ জন নেতার নামে মামলা দেয়া হলেও অনেককেই অজ্ঞাত কারণে মামলা থেকে বাদ দিয়েছে পুলিশ।

মামলায় নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, নূর এলাহী সোহাগ, হানিফ, স্বপন মিয়া, কামরুল হাসান ও মামুনকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেই মামলায় আসামীর তালিকার শীর্ষে রয়েছে জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান যিনি সারা বছর নিষ্ক্রিয় থেকে শুধুমাত্র একদিন সক্রিয় হয়েছেন। আর তাতেই তার বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দেয়া হয়েছে।

দলীয় সূত্র বলছে, ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির ২৬ জনের আংশিক কমিটির ঘোষণা দেয়া হয় যা চলতি বছরের ২৩ মার্চ পূর্ণঙ্গ কমিটি হয়েছে। যেখানে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পান কাজী মনিরুজ্জামান এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পান অধ্যাপক মামুন মাহমুদ। প্রথম থেকেই কাজী মনিরুজ্জামান তেমন কোন জোড়ালো ভূমিকা রাখতে পারেনি। বরাবরের মত ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে এসেছেন। তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে মনোনয়ন ইস্যুতে কিছুটা সক্রিয় হয়ে উঠেন। তবে নির্বাচনে পরাজয়ের পর একেবারে গায়েব হয়ে গেছে এই নেতা। কারণ দলীয় কর্মসূচি থেকে শুরু করে কোন কিছুতেই তার অস্তিত্ব টের পাওয়া যাচ্ছেনা। এমনকি নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর পর্যন্ত নিচ্ছেনা। দলীয় কর্মসূচি পালনে নেতাকর্মীদের পুলিশি রোশানলে মুখে পড়তে হচ্ছে এই নেতাকে ছাড়া। নেতাকর্মীরা নেতৃত্বের অভাবে পুলিশি বাধার মুখে একেবারে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ে। এতে বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছেন এই নেতা। সম্প্রতি তার নেতৃত্বের অবহেলার কারণে জেলা বিএনপিতে বিদ্রোহ দেখা দিয়েছিল। তবে এসব চড়াই উৎড়াই পেরিয়ে সমালোচনার বোঝা কাধে নিয়েই রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় ছিলেন কাজি মনির।

এদিকে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানটি রাষ্ট্রীয় অনুষ্টান হওয়ার ফলে এর আগে কখনোই বিএনপির কার্যক্রমে বাধা দেয়া হয়নি। যেকারণে বিগত ইতিহাস পর্যালোচনা করে বিজয় দিবসের র‌্যালিতে জেগে উঠে জেলার সভাপতি কাজি মনিরুজ্জামান। বিজয়ের র‌্যালিতে যোগদান করেই মামলার আসামী হয়। কারণ ওই দিন বিজয় র‌্যালিতে বিগত দিনের ইতিহাস ভঙ্গ করে পুলিশ বাধা দেয়। আর সেই বাধাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্য সংঘর্ষ দেখা দেয়। সেখানে পুলিশ সহ বিএনপি নেতাকর্মীরা আহত হয়। এ ঘটনায় মামলার আসামী করা হয় বিএনপির সভাপতি কাজি মনিরুজ্জামান সহ ১৯ জনকে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও