নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিকদের করোনা ভীতি!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ১১:১১ পিএম, ২৩ মার্চ ২০২০ সোমবার

নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিকদের করোনা ভীতি!

সারাবিশ^ব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক। আর এই আতঙ্কের বাইরে নয় বাংলাদেশেও। ইতিমধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে এই করোনা ভাইরাস। অনেকেই রয়েছেন কোয়ারেন্টাইনে। যার ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জবাসীও রয়েছেন করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে। তবে এই করোনা ভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জের জনপ্রতিনিধিদের অনেকেই এগিয়ে আসছেন না। এখন পর্যন্ত তাদের কোনো পদক্ষেপ লক্ষ্য করা যাচ্ছেন না। বিভিন্ন সভা সমাবেশে শুধুমাত্র নিজেদেরকে বক্তৃতার মধ্যেই সীমাবদ্ধ রেখেছেন। বাস্তবে তাদের কোন কার্যক্রম চোখে পড়ছে না।

জানা যায়, প্রাণঘাতি এক ভাইরাসের নাম হচ্ছে করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে রয়েছে মৃত্যুঝুঁকি। ইতোমধ্যে বিশে^র বিভিন্ন দেশে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। এতদিন এই ভাইরাস বাংলাদেশের বাইরে থাকলেও এবার বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে এই করোনা ভাইরাস। সরকারি হিসাব অনুযায়ী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুইজন মারাও গিয়েছেন। সেই সাথে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক রয়েছে। আর এই ভাইরাস থেকে মুক্তির অন্যতম উপায় হচ্ছে জনসচেতনতা। তবে এই জনসচেতনতায় এগিয়ে আসছেন না নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী নেতারা। শুধুমাত্র বক্তৃতা দিয়েই যাচ্ছেন।

গত ১১ মার্চ দুপুরে বন্দর উপজেলা প্রশাসনের মাসিক সভায় নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সকলকে সচেতন থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি হয়েছে চীন থেকে পরে সেটি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে। যার ফলে বাংলাদেশেও এর প্রভাব পড়েছে। আপনারা কেউ কোন প্রকার গুজবে কান দিবেন না। সরকারী ভাবে প্রচারিত সর্তকতা অবলম্বন করুন এবং জ্বর ঠান্ডা কাশি হলে দ্রুত প্রয়োজনীয় চিকিৎসা গ্রহণ করুন। এতো আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নাই।

এরপর ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী মুজিববর্ষ ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে সরকারী নিদের্শনা অনুয়ায়ী নারায়ণগঞ্জ কলেজে দোয়া ও বৃক্ষরোপন অনুষ্ঠানের পূর্বে কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সাথে সংক্ষিপ্ত মত বিনিময় সভায় সেলিম ওসমান বলেন, আপনারা কলেজের প্রতিটা শিক্ষার্থীর খোজ খবর রাখবেন। তারা যেন এই ছুটিতে বিপদগ্রস্থ হয়ে না যায়। তাদেরকে সচেতন করবেন। প্রয়োজনে প্রত্যেকের মোবাইলে এসএমএস করবেন, ফেসবুক ইউটিউবে আপনারা সর্তকতা ও সচেতনতামূলক বার্তার ভিডিও দিবেন, ক্যাবল চ্যানেলে প্রচারনা করতে পারেন। এই সময়টাতে বাসায় থেকে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে বলবেন। এখন আমাদের ধৈর্য্য ধারন করতে হবে। এ ছাড়া বিকল্প কোন ব্যবস্থা নাই। আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন আল্লাহ যেন এই মহামারি থেকে বিশ্ববাসীকে মুক্তি দেন।

এদিকে গত ১৯ মার্চ নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়া হোসেন বলেন, দেশে করোনা ভাইরাসে আঘাত হেনেছে। এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন সৃষ্টি হয় নাই। প্রবাসী অনেক লোক দেশে এসে আত্মীয় স্বজনদের সাথে বসবাস করছে। ফলে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা চেষ্টা করবো যারা প্রবাস থেকে এসেছে তাদের সাথে মেলামেশা কম করতে এবং কোয়ারেইনটানে করতে। আমরা বিভিন্ন সচেতনতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। আমরা আড্ডা গল্প গুজব থেকে বিরত থাকবো।

অন্যদিকে গত ১৪ মার্চ নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের একটি অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেন, আমরা ভয় পাওয়ার জাতি না। আমরা রক্ত দেয়ার জাতি। আমার দৃঢ় বিশ্বাস করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ সাইন রাখবে।

এরপর গত ২০ মার্চ নারায়ণগঞ্জ মাসদাইর কবরস্থান জামে মসজিদে জুম্মা’র নামাজ আদায় শেষে বলেন পৃথিবীব্যাপী যে মহামারীর আক্রমনে মানব স¤প্রদায় আজকে কঠিন মুহূর্তে উপনিত হয়েছে সেখানে একমাত্র সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ ও তার কাছে ক্ষমা ভিক্ষা ছাড়া আমাদের আর কিছুই করার নেই।

এভাবে নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী নেতারা বিভিন্ন সভা সমাবেশে একের পর এক করোনা নিয়ে সতর্ককতামূলক বক্তৃতা দিয়ে আসছেন। কিন্তু বাস্তবে তাদের কোন কার্যক্রম পরিলক্ষিত হচ্ছেন না। নিজেদেরকে শুধুমাত্র বক্তৃতাতেই সীমাবদ্ধ রেখেছেন। অন্যান্য খাতে বিপুল পরিমাণ টাকা ব্যয় করলেও করোনা নিয়ে জনসচেতনতায় তারা কোন ব্যয় করছেন না।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও