যাদের পেটাতেন তারাই এখন সেই পুলিশ নজরুলের পরম আত্মীয়!

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:৩৯ পিএম, ২৬ জুন ২০২০ শুক্রবার

যাদের পেটাতেন তারাই এখন সেই পুলিশ নজরুলের পরম আত্মীয়!

দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতার বাইরে থাকা দেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপির নারায়ণগঞ্জের নেতাকর্মীদেরকে অনেক কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে দিন অতিবাহিত করতে হয়েছে। বিশেষ দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগ মুহূর্তে বিএনপির কোনো কোনো নেতাকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। যে কোনো কর্মসূচি পালন করতে গেলেই তাদেরকে ব্যাপক মারধর কিংবা হামলা মামলা মামলার শিকার হতে হয়েছে বলে অভিযোগ বিএনপির নেতাকর্মীদের।

সে সময়ে পুলিশের কয়েকজন কর্মকতা নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ও তাদের অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের জন্য মূর্তিমান আতঙ্ক ছিলেন। সে সকল পুলিশ সদস্যদের কাজই ছিল যে কোন কর্মসূচিতে বিএনপির নেতাকর্মীদের মোকাবেলা করা। তাদেরকে ব্যাপকভাবে মারধর করা। আর তাদেরই মধ্যে একজন হলেন পুলিশ পরিদর্শক নজরুল। যার ভয়ে নারায়ণগঞ্জ বিএনপির নেতাকর্মীদের সবসময় তটস্থ থাকতে হতো। তিনি বিএনপির নেতাকর্মীদের জন্য মূর্তিমান আতঙ্ক ছিলেন। বর্তমানে তিনি অবসরপ্রাপ্ত।

বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, বেশীরভাগ বিএনপির কর্মসূচীতে বাধা দিতেন নজরুল। কদাচিৎ লাঠিপেটাও করতেন।

এদিকে গত কয়েকদিন ধরেই তিনি প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আর এই অবস্থায় নজরুলে সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছেন ‘হিরো অব করোনা’ খ্যাত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ।

এ বিষয়ে মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, ‘‘গত কয়েকদিন আগে আমাকে ফোন দিয়ে নজরুল ভাই বলেন, আমার করোনা পজিটিভ আসছে। আমার ছেলে মেয়েরা কিছু বুঝে না। আপনি যেহেতু করোনা নিয়ে কাজ করছেন। তো ভাগ্যক্রমে পুলিশ হাসপাতালের ১১ নাম্বার আইসিইউতে তিনি ভর্তি ছিলেন। ওই পুলিশ হাসপাতালে কার্ডিওলোজি বিভাগের প্রধান ডা. ইকবাল আবার টেলি মেডিসিন সেবার অন্তর্ভুক্ত ডাক্তার। তিনি আমাদের টিম মেম্বার। ডা. ইকবালকে বলার পরে তিনি স্পেশালভাবে কেয়ার করছে। এখন তিনি মোটামুটি সুস্থ আছেন। সে সুস্থ্য না হওয়ার পর্যন্ত আমরা দেখাশুনা করবো।’’

খোরশেদ আরও বলেন, ‘‘আমি আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করছি। এই মুহূর্তে আমরা এসব নিয়ে ভাবছি না। এখন আমরা দল মত শত্রু মিত্র নির্বিশেষে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। আমি এই কারণেই নজরুল ভাইয়ের পাশে দাঁড়িয়েছি। আল্লাহ তাকে দ্রুত সুস্থ্যতা দান করুক। যদি প্লাজমার প্রয়োজন হয় তাহলে প্লাজমা দিতেও প্রস্তুত রয়েছি।’’

এদিকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ এটিএম কামাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাঁর ব্যক্তিগত একাউন্ট থেকে এক পোস্টের মাধ্যমে উল্লেখ করেন, ‘‘দারোগা নজরুল, নারায়ণগঞ্জে বিএনপি’র নেতা কর্মীদের জন্য ছিল মূর্তিমান আতংক, এখন জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ঢাকা পুলিশ লাইন হাসপাতালের আইসিউতে। কিছুক্ষন আগে ফোন করে দোয়া চাইলেন, আর বললেন, কামাল ভাই আপনার সহকর্মী কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ আমার জন্য যা করেছে সেই ঋণ আমি কখনো শোধ করতে পারব না।’’


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও