আওয়ামী আইনজীবীরাও ভার্চুয়াল কোর্ট চান না

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০৬ পিএম, ৩০ জুন ২০২০ মঙ্গলবার

আওয়ামী আইনজীবীরাও ভার্চুয়াল কোর্ট চান না

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে আটকে থাকা বিচার ব্যবস্থাকে সচল রাখতে সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও চলমান রয়েছে ভার্চুয়াল আদালতের কার্যক্রম। তবে এই ভার্চুয়াল কোর্ট নিয়ে শুরু থেকেই অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে আসছেন নারায়ণগঞ্জে আইনজীবীরা। নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে প্রথমেই ভার্চুয়াল কোর্ট বর্জন করা হয়।

পরবর্তীতে কয়েকজন আইনজীবী ভার্চুয়াল কোর্টে অংশগ্রহণ করলেও বেশিরভাগই সেই কার্যক্রম থেকে বিরত থাকছেন। সেই সাথে এবার অ্যাকচুয়াল কোর্ট চালুর দাবীতে আন্দোলনেও নেমেছেন নারায়ণগঞ্জের সাধারণ আইনজীবীরা। আর সেই আন্দোলনের সাথে একমত পোষণ করছেন সরকারী দল আওয়ামী লীগপন্থী আইনজীবীরাও।

জানা যায়, ভার্চুয়াল কোর্ট বন্ধ করে অ্যাকচুয়াল কোর্ট চালুর জন্য নারায়ণগঞ্জের সাধারণ আইনজীবীরা গত কয়েকদিন ধরেই আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে আসছেন। এই আন্দোলনের অংশ হিসেবে গত ২৮ জুন রোববার নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আলী আহমেদ ভূইয়া উপস্থিত ছিলেন। যিনি ক্ষমতাসীন দলের আইনজীবী হিসেবে পরিচিত এবং জেলা আইনজীবী সমিতির সর্বশেষ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের প্যানেল থেকে সমর্থন প্রত্যাশী ছিলেন।

এরপর গত ২৯ জুন নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আলী আহমেদ ভূইয়া। তার সাথে উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট আব্দুর রউফ মোল্লা। তিনিও ক্ষমতাসীন দলের আইনজীবী হিসেবে পরিচিত এবং জেলা আইনজীবী সমিতির সর্বশেষ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের প্যানেল থেকে সমর্থন প্রত্যাশী ছিলেন।

সবশেষ ৩০ জুন সাধারণ আইনজীবীদের ব্যানারে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এদিনের মানববন্ধনে উপস্থিত হন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বন্দর যুবলীগের সভপতি অ্যাডভোকেট হাবিব আল মুজাহিদ পলু। যিনি জেলা আইনজীবী সমিতির সর্বশেষ নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে সমর্থন প্রত্যাশী ছিলেন। সেই সাথে এদিনও উপস্থিত ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আলী আহমেদ ভূইয়া ও অ্যাডভোকেট আব্দুর রউফ মোল্লা।

এভাবে আগামী দিনেও সরকারী দল আওয়ামী লীগের অনেক আইনজীবী উপস্থিত হবেন বলে জানা গেছে।

অ্যাকচুয়াল কোর্ট চালু প্রসঙ্গে সাধারণ আইনজীবীদের বক্তব্য হচ্ছে, আইনজীবী বাড়ী ভাড়া দিতে পারছে না, খেতে পারছে না, অনেকে নানান কষ্টে আছে। তারা এই কষ্ট কারও কাছে বলতে পারে না। আমরা বাঁচতে চাই, সাধারণ কোর্ট চাই। সরকারের কাছে বলবো আমরা এদেশের নাগরিক। আমাদেরকে বাঁচান। দেশের সকল সেক্টর খোলা, আইনজীবীদের পেশা বন্ধ। আমরা সরকারের বিরোধীতা করছি না। সরকারের কোনো সমালোচনা করছি না। যদি সবকিছু স্বাস্থবিধি চলতে পারে তাহলে আমরা কেন স্বাস্থবিধি মেনে কোর্ট করতে পারবো না।

প্রসঙ্গত, গত ১০ মে অধস্তন আদালতে ভার্চুয়ালি কার্যক্রম পরিচালনার পদ্ধতি সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। ২১ দফা ‘বিশেষ প্র্যাকটিস নির্দেশনায়’ অধস্তন আদালতের জামিন শুনানির পদ্ধতি বর্ণনা করা হয়। আদালত কর্তৃক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ ২০২০ এর ৫ ধারার ক্ষমতাবলে করোনায় নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিতকল্পে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আকবর আলী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই নির্দেশনা জারি করা হয়। এই নির্দেশনা জারির পর গত ১৩ মে থেকে নারায়ণগঞ্জে ভার্চুয়াল কোর্ট চালু রয়েছে।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও