মতি ও সিরাজ মন্ডল গ্রুপের সংঘর্ষে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

স্টাফ করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:০২ পিএম, ৪ আগস্ট ২০২০ মঙ্গলবার

মতি ও সিরাজ মন্ডল গ্রুপের সংঘর্ষে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সুমিলপাড়া রেললাইন (আইলপাড়া) এলাকায় কেরামবোর্ড খেলাকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের কয়েক দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা হয়েছে। এতে জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মজিবুর রহমান মন্ডলসহ ৯ গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলায় ৩৮ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ১০০-২০০ জনকে আসামী করা হয়েছে। আসামীরা সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি ও সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডলের অনুগামী।

পুলিশ ও প্রত্যাক্ষদশী জানায়, ২ আগস্ট রবিবার রাতে আদমজী রেললাইন (আইলপাড়া) এলাকায় কেরামবোর্ড খেলাকে কেন্দ্র করে একাধিক মামলার আসামী আক্তার হোসেন ওরফে পানি আক্তার ও শাকিল নামে দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

ওই ঘটনার জের ধরে পরে উভয় গ্রুপ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। আক্তার হোসেন ওরফে পানি আক্তার সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহ্বায়ক ও নাসিক কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির সহযোগী।

অন্যদিকে শাকিল নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর এবং বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের সহযোগী।

বিষয়টি নিয়ে নাসিক কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির কার্যালয়ে দুই পক্ষকে ডেকে এ সংঘর্ষের বিচার করেন মতিউর রহমান মতি। এসময় মতিউর রহমান মতি তার লোকদের পক্ষ নিয়ে অপর পক্ষকে দোষারোপ করে বিচার করেছেন এ অভিযোগ এনে সিরাজ মন্ডল গ্রুপের সহযোগীরা প্রতিবাদ করতে থাকে। এ সময় প্যানেল মেয়র মতিউর রহমান ও তার সেকেন্ড ইন কমান্ড বিএনপি থেকে আওয়ামলীগে যোগদান করা আশরাফের নির্দেশে মতিউর রহমানের সহযোগী পানি আক্তার গ্রুপের সদস্যরা চাপাতি, হকিস্টিক, রামদা, লোহার রড নিয়ে হামলা চালায় সিরাজ মন্ডল গ্রুপের লোকদের উপর।

এতে উভয়পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে আইনুল, সোহেল, কুট্টি, আমির, আহসানউল্লাহ, হৃদয়, সবুজ, আরিফ, আসাদুল, বেগম, আসিফ, হৃদয়, ইব্রাহীম, সবুজ ও রাসেলসহ ২০ জন আহত হয়েছে।

গুরুতর আহতদেরকে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন হাসপাতাল ও কিèনিকে ভর্তি করা হয়েছে। বাকীদের সাধারণ চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। সংঘর্ষের খবর পেয়ে র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল মন্ডল জানান, দুই পক্ষে মধ্যে সংঘর্ষ হলে কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি বিচার শালিসী করার জন্য উভয় পক্ষকে তার অফিস নিয়ে যায়। ওই অফিসেই তার লোকজন তার উপস্থিতিতে প্রতি পক্ষের উপর হামলার চালায়। এতে আমাদের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

নাসিক প্যানেল মেয়র-২ মতিউর রহমান মতি জানান, সিগারেটে আগুন ধরানো কেন্দ্র করে দুটি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। পরে আমার অফিসে এনে বিচার শালিসী করার সময় সিরাজ মন্ডলের লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালায়। পরে আমি পুলিশ ডেকে এনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বাধ্য হই।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইশতিয়াক আশফাক রাসেল জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মজিবুর রহমান মন্ডলসহ ৯ গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে গতকাল মঙ্গলবার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। সংঘর্ষের ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এস আই মাহবুব বাদী হয়ে ৩৮ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ১০০-২০০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন।


বিভাগ : রাজনীতি


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও