৪ আশ্বিন ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৫:২১ পূর্বাহ্ণ

`আল্লাহকে কটূক্তিকারীকে সাজা দিয়ে ফাঁসি হলেও আপত্তি নাই`


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:৩৮ পিএম, ২৬ জুন ২০১৮ মঙ্গলবার


`আল্লাহকে কটূক্তিকারীকে সাজা দিয়ে ফাঁসি হলেও আপত্তি নাই`

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান বলেন, আমাকে যতই সংবর্ধনা দেন না কেন আমি ব্যর্থ। আমি এমপি হতে পারি নাই। আমি ছোট ভাই ও বোনের (শামীম ওসমান ও আইভী) ঝগড়া থামাতে পারি নাই। কারা এসব ঝগড়া করায় কারা এটা সৃষ্টি করায়। আমি দায়িত্ব দিয়েছি মোহাম্মদ আলী, এমপি বাবলী, আমিনুর রহমানের কাছেও। কিন্তু তারাও ব্যর্থ।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি হিসেবে ৪ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ২৬ জুন মঙ্গলবার বিকেলে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। চার বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ওই সংবর্ধনার আয়োজন করে।

এর আগে ২০১৪ সালের ২৬ জুন উপ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি হতে এমপি নির্বাচিত হন সেলিম ওসমান। ওই বছরের ৩০ এপ্রিল সেলিম ওসমানের বড় ভাই জাতীয় পার্টির সভাপতি মন্ডলীর সদস্য নাসিম ওসমানের মৃত্যু হলে আসনটি শূন্য হয়।

নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুরে অবস্থিত ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের সামনের সড়কে মঙ্গলবারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ ও বন্দরের সিটি করপোরেশন এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলর, বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানেরা উপস্থিত ছিলেন। বেশীরভাগ বক্তা সেলিম ওসমানকে আবারো আগামী নির্বাচনে অংশ নেওয়ার দাবী করেন।

সেলিম ওসমান নেতাকর্মীদের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বলেন, ‘আমি আবারো সবার সঙ্গে কথা বলবো। আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উন্নয়ন করবো। সেপ্টেম্বরে উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরবো। তখন আপনাদের মতামত নিব। আপনারা চাইলে মার্কা ছাড়াও সেলিম ওসমান নির্বাচন করতে পারে। এটা আজ প্রমাণিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেটা নির্ধারণ করবেন সেটাই হবে। তিনি যদি বলেন এ মার্কায় নির্বাচন করো। তাহলে ওই মার্কার পক্ষেই সবাই কাজ করবে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী নারায়ণগঞ্জে এসে নৌকার উপরে লাঙল তুলে দিয়ে গেছেন। সুতরাং এটা নিয়ে এখনই কিছু বলার নাই।’

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিএনপি দলীয় বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল, মহানগর বিএনপির দফতর সম্পাদক কাউন্সিলর হান্নান সরকার সহ আরো কয়েকজন বক্তব্য রাখেন যারা সেলিম ওসমানকে ‘আগামীতে এমপি হিসেবে দেখতে চাই’ বলেন।

সেলিম ওসমান অনুষ্ঠানে পুলিশকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘পুলিশকে আহবান করবো অহেতুক খোচাখুচি করবেন না। বিএনপি করলেই গ্রেফতার করতে হবে এ ধারণা পাল্টাতে হবে। ধরপাকড় কমান।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমি সবার সঙ্গেই কথা বলতে পেরেছি। পারি নাই সিটি করপোরেশনের মেয়রের সঙ্গে। আমি ডিক্লেয়ারেশন দিব আমি সিটি করপোরেশনের সাথে কথা বলতে চাই। আজকে এতগুলো কমিশনার এসেছেন আপনাদের দায়িত্ব যদি উনি আমাকে না করেন তাহলে এমনও হতে পারে আমি অপেক্ষা করবো। যদি তিনি বসতে রাজি না হয় তাহলে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষকে দুর্ভোগ থেকে মুক্তি এবং নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে স্বার্থে আগামী সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৫ থেকে অন্য কেউ এমপি হবে। আমি সিটি কর্পোরেশনের চেয়ারে বসবো। আমার নারায়ণগঞ্জের মানুষ ময়লা খাবার খায়, ডায়রিয়ায় ভোগে, রাস্তায় ময়লায় স্তূপ হাটতে পারেনা। আমি সিটি করপোরেশনের মেয়রের সঙ্গে কথা বলতে চাই। ছোট বোন তোমার বাবা আমার খুব পছন্দের মানুষ। তোমার চেয়ারে বসে কাজ করতে সমস্যা হলে আমাদের বলো আমরা সহযোগিতা করবো।’

উন্নয়ন প্রসঙ্গে সেলিম ওসমান বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে ৩০০ শয্যা হাসপাতাল ৫শ শয্যায় উন্নীত হবে। নারায়ণগঞ্জবাসী চাইলেই হবে। ইতোমধ্যে শীতলক্ষ্যা সেতুর কাজ শুরু হয়েছে। সেতু না হওয়া পর্যন্ত নবীগঞ্জ-হাজীগঞ্জ পয়েন্টে ফেরি চলবে।’

নারায়ণগঞ্জ শহরের মর্গ্যান স্কুলের ভবন ভাঙা প্রসঙ্গে সেলিম ওসমান বলেন, ‘মর্গ্যান স্কুলের একটি দেয়াল ভেঙে দেওয়া হয়েছে। রাতের আঁধারে কেন ভেঙে দেওয়া হলো সেটা বোধগম্য না। এ স্কুল নিয়েও রাজনীতি হচ্ছে। আগামীতে মর্গ্যান স্কুলের উন্নয়ন সবার আগে হবে।’

কয়েকটি ঘটনায় শিক্ষকদের সমালোচনা করে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের একটি স্কুলের শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দিয়েছে। এটা ঠিক না। আর বন্দরের এক স্কুলের শিক্ষককে আমি আল্লাহকে কটূক্তির কারণে সাজা দিয়েছি। এ ঘটনায় অনেকেই আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। অনেক আইনজীবী মামলা লড়ছে। ভাবখানা এমন যে আমার ফাঁসি দিবে। আমি বলতে চাই আল্লাহকে কটূক্তিকারীকে যদি সাজা দেওয়ায় ফাঁসি হয় আমি মনে করবো আমি শহীদ হবো।’

চেম্বারের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজলের সভাপতিত্বে সেখানে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা, শিল্পপতি ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নারায়ণগঞ্জ জেলার সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলী ক্রীড়া সংগঠক কুতুবউদ্দিন আকসির, জেলা বিএমএ সভাপতি ডা. শাহনেওয়াজ, জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক আবুল জাহের, আইনজীবী সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সেক্রেটারী মোহসিন মিয়া, বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মুকুল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান, সেক্রেটারী হাজী ইয়াছিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি চন্দন শীল, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, মহাননগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, নাজমুল আলম সজল, সাইফউদ্দিন আহমেদ দুলাল, আবদুল করিম বাবু, আফজাল হোসেন, হান্নান সরকার, মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি ও কাউন্সিলর জমশের আলী ঝন্টু, কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু, আরিফুল হাসান, সুলতানউদ্দিন নান্নু, ব্যবসায়ী এম সোলায়মান, শিরিন আক্তার, কামরুল হাসান মুন্না, আলী হোসেন আলা, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জুলহাস ভূইয়া, মুক্তিযোদ্ধা আমিনুর রহমান, মদনপুরের চেয়ারম্যান এম এ সালাম, মুছাপুরের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন, মাসুম আহমেদ, দেলোয়ার প্রধান, মতিউর রহমান মতি, নওশেদ আলী, এহসান আহমেদ, ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বিএনপি কামরুজ্জামান বাবলু, বিএনপি নেতা ও ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম নবী মুরাদ, বিএনপি নেতা ও ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হান্নান সরকার, ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বিএনপি নেতা সুলতান আহমেদ, ২৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এনায়েত হোসেন, ১৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফয়সাল মাহমুদ, ২৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেন, ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফউদ্দিন দুলাল প্রধান, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর শিউলি নওশেদ ও হোসনে আরা বেগম, নারী কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নী, ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল করিম বাবু, ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল প্রমুখ।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

ধর্ম -এর সর্বশেষ