প্রস্তুত নারায়ণগঞ্জের গির্জাগুলো

সিটি করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:২৭ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮ সোমবার

প্রস্তুত নারায়ণগঞ্জের গির্জাগুলো

খ্রিস্টান ধর্মালম্বীদের সব চেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসবের প্রস্তুতি চলছে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন গীর্জায়। খ্রিস্টান ধর্মালম্বীরা বিশ্বাস করেন ২৫ডিসেম্বর মঙ্গলবার খ্রিস্টান ধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রীষ্ট জন্মগ্রহন করেন।

২৫ ডিসেম্বর যিশুখ্রিস্টের জন্মোৎসব উদযাপন করতেই বড়দিন পালন করা হয়। বরাবরের মতো এবারো আনন্দের সাথে শহরের গীর্জাগুলোয় পালন করা হবে এই পবিত্র ধর্মীয় উৎসব। নারায়ণগঞ্জ শহরে ২টি গীর্জা রয়েছে একটি ক্যাথলিক এবং একটি ব্যাপিস্ট দের জন্য। ক্যাথলিকদের জন্য বঙ্গবন্ধু সড়কে রয়েছে সাধু পৌলের গীর্জা এবং শহরের কালিরবাজারে অবস্থিত ব্যাপিস্ট চার্চ ব্যাপিস্টদের জন্য।

২৫ ডিসেম্বর শহরের সাধু পৌলের গীর্জায় সরেজমিনে দেখা যায় উৎসবের আমেজে ইতমধ্যে শুরু হয়ে গেছে বড়দিনের প্রস্তুতি। খ্রিস্টান ধর্মালম্বী মেয়েরা হরেক রঙের রং দিয়ে মেঝেতে আলপনা দিচ্ছে, ছেলেরা অতি যত্মে নানা ধরনের সামগ্রী দিয়ে সাজাচ্ছে ক্রিসমাস ট্রি।

ইতোমধ্যে নতুন করে গীর্জায় রং করা হয়েছে এবং সিটি কর্পোরেশনের অনুমতি নিয়ে আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

গীর্জা সূত্রে জানা যায়, ২৩ ডিসেম্বর ও ২৪ ডিসেম্বরের পাপস্বীকার এবং বিশেষ উপাসনার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে বড় দিনের উৎসব।

২৫ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮ টায় খ্রীষ্টযাগ উৎসবের মধ্য দিয়ে শুভ বড়দিন উদযাপন শুরু হবে এবং সকাল সাড়ে ১০ টায় কেক কাটা হবে।

অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিচালনায় আছেন গীর্জার পাল-পুরোহিত ফাদার আগস্টিন অমল রোজারিও। সার্বিক সহযোগীতায় থাকবেন গীর্জার সেক্রেটারী পিন্টু পলিকাপ পিউরিফিকেশন এবং গীর্জার কোষাধ্যক্ষ পিটার রঞ্জিত হালদার।

পিন্টু পলিকাপ পিউরিফিকেশন নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৮ টায় আমাদের প্রার্থনা (খ্রীষ্টযাগ) অনুষ্ঠান শুরু হবে। তখন সকল ক্যাথলিক ধর্মালম্বীরা এখানে উপস্থিত থাকবেন। সাড়ে ১০ টায় চার্চে কেক কেটে যিশু খ্রীষ্টের জন্মদিন উদযাপন করা হবে। তখন সকলের জন্য চার্চ উন্মুক্ত থাকবে।’


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও