অজ্ঞতার অন্ধকার দূরে নারায়ণগঞ্জে সরস্বতী পূজা

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৩৩ পিএম, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শনিবার

অজ্ঞতার অন্ধকার দূরে নারায়ণগঞ্জে সরস্বতী পূজা

সারা বিশ্বের মতো রোববার ৯ ফেব্রুয়ারী নারায়ণগঞ্জে অনুষ্ঠিত হবে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা। অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করতে কল্যাণময়ী দেবীর কাছে প্রার্থনা জানাবেন শিক্ষার্থী ও ভক্তরা। “সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমললোচনে, বিশ্বরূপে বিশালাক্ষী বিদ্যাংদেহী নমোহস্তুতে” এ মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য দেবী সরস্বতীর অর্চনা করবেন।

বিদ্যা দেবীর আরাধনার অপেক্ষায় প্রহর গুনছে সনাতন ধর্মের শিক্ষার্থীরা। সরস্বতী পূজাকে জমিয়ে তুলতে প্রতিমা তৈরির শেষ সময়ের কাজে ব্যস্ত নারায়ণগঞ্জের প্রতিমা শিল্পীরা।

নারায়ণগঞ্জ দেওভোগ মন্দির প্রাঙ্গনে সরস্বতী প্রতীমা কারিগর তারক নাথ বলেন, ‘প্রতিমার কাছ প্রায় শেষের পথে। এখন রঙ করা আর চোখ ফুটানো বাকি। প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কাজ চলছে। এছাড়াও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রতিমার কাজ শেষ হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এখন সব জিনিসপত্রের দাম অনেক বেশি তাই আকার অনুযায়ী প্রতিমার দাম ২ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত নেওয়া হচ্ছে। তাছাড়া আগে থেকে অর্ডার দেওয়া প্রতিমার মধ্যে আরো বেশি দামেরও আছে।’

দেওভোগ রামসীতা মন্দিরের পূজারী শ্যামল মহারাজ বলেন, অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করতে কল্যাণময়ী দেবীর কাছে প্রার্থনা জানাবেন শিক্ষার্থী ও ভক্তরা। “সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমললোচনে, বিশ্বরূপে বিশালাক্ষী বিদ্যাংদেহী নমোহস্তুতে” এ মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য দেবী সরস্বতীর অর্চনা করবেন।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক দিলীপ কুমার মণ্ডল বলেন, ‘র্দূগাপূজা বা কালিপূজার মতো নিদিষ্ট ভাবে বলা সম্ভব না কতটা পূজা হয়। তবে জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মন্দির, বাসাবাড়ি, রাস্তা এবং স্থায়ী অস্থায়ী ভাবে কয়েক শতাধিক মণ্ডপে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘শাস্ত্রীয় বিধান অনুসারে মাঘ মাসের শুক্লা পঞ্চমী তিথিতে এ দেবীর পুজার আয়োজন করা হয়। শ্রী পঞ্চমীর দিন ভোরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষার্থীদের ঘরে ও সর্বজনীন পূজা মন্ডপে দেবীর পূজা হবে। ধর্মপ্রাণ হিন্দু পরিবারের এ দিন শিশুদের হাতে খড়ি দেয়া হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সরস্বতী পূজার প্রচলন হয় বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিকে। শাস্ত্রীয় বিধান অনুসারে শ্রী পঞ্চমীর দিন সকালেই সরস্বতী পূজা সম্পন্ন করা হয়। এ পূজায় আমের মুকুল, দোয়াত-কলম, যবের শিষ, বাসন্তী রঙের গাঁদা ফুলসহ কয়েকটি বিশেষ সামগ্রীর প্রয়োজন হয়। ধর্মগ্রন্থ অনুসারে, ছাত্রছাত্রীরা পূজার আগে উপবাস করেন। পূজার দিন কিছু লেখাও নিষিদ্ধ আছে। যথাবিহিত পূজার পর লক্ষ্মী-নারায়ণ, লেখনী-মস্যাধার (দোয়াত-কলম), পুস্তক ও বাদ্যযন্ত্রেরও পূজা করা প্রচলিত আছে। পূজার সময় পুষ্পাঞ্জলি দেওয়া অত্যন্ত জনপ্রিয়।


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও