আড়াইহাজারে ওরস ঠেকাতে গিয়ে জনরোষে পুলিশ

আড়াইহাজার করেসপন্ডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৬:৩৩ পিএম, ১২ মার্চ ২০১৯ মঙ্গলবার

আড়াইহাজারে ওরস ঠেকাতে গিয়ে জনরোষে পুলিশ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ওরস ঠেকাতে গিয়ে জনরোষের কবলে পড়ে পুলিশ। ওই সময়ে পুলিশের একজন এএসআইকে আটকে রাখে উত্তেজিত জনতা। ভাংচুর করে পুলিশের বহনকৃত সিএনজিটি। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। ঘটনাটি ঘটেছে ১১ মার্চ সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার মারুয়াদী এলাকায়।

এলাকাবাসি জানায়, ওই রাতে মারুয়াদী গ্রামের এসহাক চিশতির ওরশ পালন করা হয় থানা পুলিশের অনুমতিতে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে থানার এএসআই শরিফুল ইসলাম ফোর্স নিয়ে গিয়ে ওরশ বন্ধ করতে বলে। এক পর্যায়ে পুলিশ ওরশের সভাপতি কামরুল ইসলামকে গাড়ীতে করে নিয়ে আসার চেষ্টা করে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে উপস্থিত ওরশ প্রেমী মানুষ। এক পর্যায়ে এ এস আই শরিফ অস্ত্র তাক করে গুলি করার হুমকি দেন জনসাধারণকে। এতে তারা অরো বেশী ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের বহনকারী সিএনজি গাড়ি ভাংচুর করে ও এএসআই শরিফুল ইসলামকে আটক করে রাখে। পরে ফোন পেয়ে থানার অপর পুলিশ কর্মকর্তারা অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে গিয়ে ওরশ মাহফিল অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতিতে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

ওরস আয়োজন কমিটির সভাপতি কামরুল জানান, আমরা থানার ওসির লিখিত অনুমতি নিয়েই ওরশের আয়োজন করেছি।

এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি আকতার হোসেন বলেন, ওরশের কোন অনুমতি দেওয়া হয়নি। শুনেছি ওরশে জুয়া হচ্ছে তাই আমরা ওরশ বন্ধ করতে গিলে জনতার সাথে ভুল বুঝাবুঝি হয়।


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও