নারায়ণগঞ্জে এবার কুমারী সাজবেন ঐশী

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:০৩ পিএম, ৩ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার

নারায়ণগঞ্জে এবার কুমারী সাজবেন ঐশী

নারায়ণগঞ্জ শহরের রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গাপূজার প্রধান আকর্ষণ কুমারী পূজা। হাজারো ভক্ত দেবী দুর্গা ও কুমারী মাকে জয়ধ্বনি দিয়ে বরণ করে মহাষ্টমীর দিন সকাল ১০ টায় দেবীকে আসনে বসানো হবে। এবার কুমারী দেবীরূপে মণ্ডপে অধিষ্ঠিত হবেন তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী ঐশী চক্রবর্তী (৯)। তার বাবা পরিমল চক্রবর্তী পেশায় চাকুরীজীবী মা রীতা চক্রবর্তী গৃহিনী।

রামকৃষ্ণ মিশনের প্রধান মহারাজ তিলক মহারাজ নিউজ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, প্রতিটি মেয়ের মাঝে মা বিরাজমান। সেটা জেনে কুমারী পূজা করা হয়। অতিতে এটার অনেক প্রচলন ছিলো। বর্তমানে অনেক কম পালন করা হয়। কুমারী পূজায় প্রায় ২০ হাজার লোকের সমগম হয় আর এজন্য পুলিশ প্রশাসন থেকে সব ধরনের সহযোগিতা প্রদান করার আশ্বাস দিয়েছেন এবং সব সময় যোগাযোগ করছেন। সরকার দুর্গাপূজা শান্তিপূর্ণ ভাবে পালন করার জন্য অনেক আন্তরিক আছে।

তিনি আরো বলেন, বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত, পঞ্জিকা মতে ৬ অক্টোবর দুর্গাপূজার বিজয়া দশমী পালন করা হবে। শাস্ত্রীয় বিধান মতে রামকৃষ্ণ মিশনে পূজা করা হয়। তাই সব ধরনের আলোকসজ্জাসহ বাহ্যিককার্য পরিহার করা হয়। দুর্গাপূজার সপ্তমী, অষ্টমী ও নবমী তিনদিন দুপুর ১২ টায় দুর্গামায়ের অঞ্জলি অনুষ্ঠিত হবে।

পঞ্চমী সম্পর্কে তিনি বলেন, ওই দিন দেবী মায়ের বোধন। যার মানে অনুভব করা। বোধ করা। বোধ থেকে বোধন। দেবী মাকে হৃদয়ে থেকে প্রমাণ করা। মুর্তি মাটির তৈরি কোন কিছু না। মুর্তি মানে মূর্ত। ভাগবান প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।

ষষ্ঠী পূজা সম্পর্কে তিনি বলেন,  ৬ষ্ঠী পূজার দিন কল্প করা হয়। যার মানে সংকল্প করা। মায়ের পূজার সংকল্প করা। ওই দিন বিকালে আমন্ত্রণ ও অধিবাস। অধিবাস মানে কাছাকাছি বসবাস করা। প্রাচীন কালের ঋষিরা বেল গাছের নিচে দেবী মাকে প্রথম অনুভব করেন তাই ওইদিন বেলগাছের নিচে প্রথমে মায়ের পূজা করা হয়।

সপ্তমী পূজা সম্পর্কে তিনি বলেন, সকালে সর্ব দেব দেবীর পূজা করা হয়। পরে মায়ের পূজা। পুষ্পাঞ্জলি দেয়া হয়।

অষ্টমী পূজা সম্পর্কে তিনি বলেন,  সকালে সর্ব দেবদেবীর পূজা পরে কুমারী পূজা। পরে পুষ্পাঞ্জলি দেয়া হবে। অষ্টমী তিথির ২৪ মিনিট ও নবমী তিথির ২৪ মিনিট মিলে ৪৮ মিনিট সন্ধি পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

নবমী পূজা সম্পর্কে তিনি বলেন, সর্বদেবদেবীর পূজা, হোম বা আহুতি। বৈদিক মতে ঋষিরা আগুনের মধ্যে মায়ের অনুভব করে তাই নবমী পূজার দিন আগুনে আহুতি দেয়া হয়। পরে পুষ্পাঞ্জলি অনুষ্ঠিত হবে।

দশমী সম্পর্কে তিনি বলেন, দশমী  মানে বির্সজন। বির্সজন মানে ফেলে দেওয়া বা পানিতে ডুবিয়ে দেয়া নয়। বির্সজন মানে মাকে বিশেষ ভাবে অর্জন। এতদিন প্রতিমা আকারে যে মায়ের পূজা করা হয়েছে সেই মাকে হৃদয়ে স্থান দেয়া। সেই জন্য সকালে দর্পণ বির্সজন দেয়া হয়। ভগবান সব সময় হৃদয়ে বসবাস করেন।

তিনি আরো বলেন, প্রতিটি মানুষ ধর্ম ধারণ না করলে ভালো ভাবে মানুষ এগুতে পারবে না। ধর্মহীন মানুষ পশুর সমান। ধর্ম না থাকলে মানুষের বিবেক থাকে না। স্বামী বিবেকান্দ বলেছেন আহার, নিদ্রা, বংশ বিস্তার সকল জীব করে। একমাত্র মানুষ ধর্ম বিশ্বাস করতে পারে। জীবনের উদ্দেশ্য ঈশ্বর লাভ। প্রতিটি মানুষ হোঁচট খেয়ে এক সময় ধর্মের কাছে আসবে।


বিভাগ : ধর্ম


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও