১ কার্তিক ১৪২৫, বুধবার ১৭ অক্টোবর ২০১৮ , ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ

UMo

নারীর সাথে মাওলানা তামিম বিল্লাহর স্ক্যান্ডাল


সময়ের নারায়ণগঞ্জ রিপোর্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৪:৫৯ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০১৮ বুধবার


নারীর সাথে মাওলানা তামিম বিল্লাহর স্ক্যান্ডাল

নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের আমীর মাওলানা আবদুল আউয়ালের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য মিছিল ও সমাবেশ করে আলোচনায় আসা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের নেতা মাওলানা তামিম বিল্লাহর একটি ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে উঠেছে। এতে দেখা গেছে একজন নারীর সঙ্গে বদ্ধ কক্ষে পাওয়া গেছে তামিম বিল্লাহকে। ওই সময়ে তাদের কথোপকথনের বিষয়টিও ছিল বেশ অসংলগ্ন।

১৭ এপ্রিল মঙ্গলবার সকাল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ে। আর এর পর থেকে বিষয়টি নিয়ে রীতিমত তোলপাড় সৃষ্টি হয়। তবে তামিম বিল্লাহর অভিযোগ এ ভিডিটিও ২ বছর আগের। আর আরেক পক্ষের দাবী, এ ভিডিওটি প্রমাণ করে তামিম বিল্লাহর চরিত্র।

২ মিনিটেরও বেশী সময়ের ওই ভিডিওটি ধারণ করা হয় তামিম বিল্লাহর বদ্ধ ঘরে। সেখানে বিছানার উপর বসা ছিলেন তামিম বিল্লাহ। আর পাশেই ছিলেন একজন নারী।

ভিডিওটিতে দেখা যায় যিনি মোবাইলে ভিডিও করছেন সেই পুরুষ বলছেন, ‘এই শোনেন, বুঝছি, চাপেন তামিম ভাইয়ের লগে বসেন। চাপেন আরো চাপেন। মাথার ই (ঘোমটা) খোলেন। অল্প একটু দিয়া রাখবেন, তাড়াতাড়ি খোলেন।’

এরই মধ্যে সেই নারী কিছুটা ঘোমটা সরিয়ে নেয়)

ভিডিও ধারণকারী প্রশ্ন করেন - আপনার হাসবেন্ডের সাথে আপনার কোন সম্পর্ক নাই?

নারীর উত্তর - ছিল, তার সাথে এখন আমার সম্পর্ক নাই।

ভিডিও ধারণকারী বলেন - চুপ থাকেন। আপনি কি, আপনার থেকে আপনার থেকে হাজার হাজার গুণে ইজ্জত এই বন্দর

মাটিতে পাইলাম না। এজন্য আজকে ইজ্জত দিতাছি। আপনি কেন থাকবেন এগুলার সাথে?

নারী - আমি জানি না।

ভিডিও ধারণকারী - বুঝার কিছু নাই। তার (তামিম বিল্লাহ) ওয়াইফ বাড়িতে নাই। আর আপনি থাকবেন এনে, এইখানে বুঝার কিছু নাই। কি তামিম ভাই এখানে বুঝার কিছু আছে?

তামিম বিল্লাহ-না।

ভিডিও ধারণকারী - আপনারা দুইজন এক ঘরে তামিম ভাই স্বীকার করছে। আমরা আর হেরে একটা ফুলের টোক্কা ও দিমু না। আপনেরে তো একটা টোক্কা দিছি । হেরে একটা টোক্কা ও দেই নাই। হেরে টোক্কা দেওয়ার তো দরকার নাই। আপনি কি আপনারে স্বীকার করাইতে দুই মিনিট ও লাগবে না।

এরই মধ্যে তামিম বিল্লাহ নারীর উদ্দেশ্যে বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, “আরে চুপ”।

ভিডিও ধারণকারী পুরুষ - চান ঐদিকে চান, চান না কেরে? ঐদিকে চান, ঐদিকে চান, ঐদিকে চান, পুরাপুরিভাবে চান”।

এখানে উল্লেখ্য যে, হেফাজতের আমীর আল্লামা আহামদ শফি ও নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির আমীর মাওলানা আব্দুল আউয়ালের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদানের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। ৫ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সমানে জেলা তৌহিদি জনতার উদ্যোগে এই বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বক্তারা আরো বলেন, ‘এদিকে এক ভন্ড আছে বাহাদুর শাহ। আর অন্যদিকে আছে এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী যে রেলওয়ের ১৮২ শতাংশ জায়গা দখল ভোগ দখল করছে। আরেক ভন্ড রয়েছে বন্দরের তামিম বিল্লাহ। এসব ভন্ডদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি। আগামী জুম্মার নামাজের পর আবারো বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের আমীর আব্দুল আউয়ালের শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করার অভিযোগ তুলে ৪ এপ্রিল বেলা ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে সুন্নী জনতার ব্যানারে এই মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বক্তারা আরো বলেন, আব্দুল আউয়াল নারায়ণগঞ্জে শান্ত পরিবেশকে ঘোলাটে করার চেষ্টা করছে। আউয়াল চাষাঢ়া শহীদ মিনারে হামলা সহ সরকারবিরোধী আন্দোলনের সাথে জড়িত ছিল। আমরা সুন্নী জনতা তীব্র ভাষায় প্রতিবাদ জানাচ্ছি পাশাপাশি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি। সমাবেশ শেষে আব্দুল আউয়ালের শাস্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

ভিডিও প্রসঙ্গে তামিম বিল্লাহ বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে ভিডিও প্রচার করেছে, সেটা পরিকল্পিত ও বানানো এবং একটি মিথ্যা প্রচারণা। ২ বছর আগে আমার বাসভবনে কিছু চাঁদাবাজ, লম্পট তাদের ভাড়াটে মেয়েকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে আমার মা, স্ত্রী, মেয়ে ও ছেলেকে জিম্মি করে ২ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করে। যা নারায়ণগঞ্জের অনেক মানুষই জানে। এ ঘটনায় তখন আমি নির্দোষও প্রমাণিত হয়েছি। ডিআইটি মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল আউয়ালের সাথে বিরোধের জের ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বর্তমানে ভিডিওটি ছাড়া হয়েছে।
 

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

স্যোশাল মিডিয়া -এর সর্বশেষ