৩ আশ্বিন ১৪২৫, বুধবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ , ৬:১৫ পূর্বাহ্ণ

শহরের মার্কেটগুলোতে নারীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার : ফেসবুকে বর্ণনা


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৪ পিএম, ২৯ জুন ২০১৮ শুক্রবার


শহরের মার্কেটগুলোতে নারীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার : ফেসবুকে বর্ণনা

পণ্যের চাহিদা না পূরণ হওয়া পর্যন্ত ক্রেতারা একেরপর এক দেখে থাকেন। শুধু দেখেন না বিভিন্ন দোকানও পরিবর্তন করেন। কয়েকটা দোকান ঘুরে আবারও প্রথম দোকানে ফিরে এসে প্রথম দেখা পণ্য কিনেছেন এমন অভিজ্ঞতা প্রায় সকলেরই কম বেশি আছে। তবে সম্প্রতি বিক্রেতারা এসব বিষয়ে বেশ কড়া। যার ফলে প্রায়ই ক্রেতা ও বিক্রেতাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হচ্ছে। তবে এতে বিক্রেতাদের খারাপ ব্যবহারই সূত্রপাতের মূল কারণ। তবে এসব বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ শহরে প্রশাসনের কোন নজরদারী কিংবা আইনের প্রয়োগ নেই।

সম্প্রতি শহরের কালীরবাজার এলাকার দ্বিতীয় তলার ‘মারইয়াম ফ্যাশন পয়েন্ট’ নামে একটি কাপড়ের দোকানে নারী ক্রেতাদের সঙ্গে বাজে ব্যবহার করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নারীদের সঙ্গে দোকানটির বিক্রেতাদের ব্যবহার সম্পর্কে লিখে ও একটি ছবি সহ নারায়ণগঞ্জের জনপ্রিয় ফেইসবুক গ্রুপ ‘নারায়ণগঞ্জস্থান’ এ পোস্ট করেছে ‘রওশান হোসাইন।

তিনি লিখেছেন, কালীরবাজারের দ্বিতীয় তলায় সিড়ির সঙ্গে দোকানে গিয়েছিলাম। এ দোকানদারের ব্যবহার এতো খারাপ যে জিনিস দেখলেই কিনতে হবে। শুধু মাত্র দুইটা হিজাব দেখে ছিলাম। কিনি নাই বলে পিছন থেকে ডেকে অকথ্য ভাষায় বলেছে। দোকানের অন্য বালকও বাজে ভাষায় কথা বলেছে। এর প্রতিবাদ করায় অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেছে’।

এ লেখার সঙ্গে প্রতিবাদ জানিয়েছেন বেশ কয়েকজন গ্রুপের সদস্যরা। যাদের মধ্যে একাধিক নারী ওই দোকানে গিয়ে বাজে ব্যবহারের সম্মুখীন হয়েছে বলেও একমত প্রকাশ করেন। তবে এ বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ দেয়া হয়নি।

নারায়ণগঞ্জের মার্কেটগুলোতে প্রায় ঘটছে এ ধরনের ঘটনা। কেউ সরাসরি অভিযোগ না করলেও ফেইসবুক কিংবা পরিবার পরিজনের সঙ্গে শেয়ার করছেন। আর প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় দিনদিন এর মাত্র বেড়ে চলেছে।

৩ এপ্রিল কালীরবাজারে হাকার মার্কেটের সামনে এক হকার এক নারীকে লাঞ্ছিত করে। তবে সে সময়ও পুলিশে কোন অভিযোগ না দিয়ে ওই নারী বাসায় ফিরে যান।

২০১৭ সালের ১৪ জুন শহরের সমবায় নিউ মার্কেটে হৃদিকা ফ্যাশনে একটি জামা দরদাম করা নিয়ে ক্রেতাকে মারধর করে দোকান মালিক। পরে পুলিশে অভিযোগ কলে পুলিশ এসে দোকান মালিককে আটক করে নিয়ে যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চাষাঢ়া এলাকার এক নারী জানান, প্রায় সময় মার্কেটে গেলে বিক্রেতারা বাজে ভাবে দৃষ্টি দেয়। শুধু দৃষ্টি না দোকানের মধ্যে অনেক কথা বলে। কিছু দোকানদার বিক্রি করার জন্য চাপ সৃষ্টিও করে। কিন্তু এসব বিষয়ে কোন অভিযোগ দেওয়ার মতো তেমন কোন প্রমাণ থাকে না। যার ফলে কোন কিছু করা যায় না বরং সহ্য করতে হয়।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ প্রশাসন নিজ উদ্যোগে ক্রেতা সেজে এসব দোকানগুলোতে গেলেই এ সত্য পেয়ে যাবেন। আর তারা ব্যবস্থা নিলে এসব করার সাহস পাবে না।

সজিব নামে এক ক্রেতা জানান, এ ধরনর ঘটনা অহরহ ঘটছে। সমবায়, মার্ক টাওয়া, হক প্লাজা, বর্ষণ সহ বেশ কিছু মার্কেটে পুরুষ ক্রেতাদের সঙ্গে সব থেকে বেশি বাজে ব্যবহার করে বিক্রেতারা। দাম ও পছন্দ দুইটা এক না হলেও ক্রেতাদের নিতে বাধ্য করে। এর প্রতিবাদ করতে গেলে বাজে কথা শুনতে হয়।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

স্যোশাল মিডিয়া -এর সর্বশেষ