ফুটবল বিশ্বকাপে শহরে রমরমা জুয়ার আসর উড়ছে লাখ টাকা

৫ ভাদ্র ১৪২৫, সোমবার ২০ আগস্ট ২০১৮ , ১২:৪০ অপরাহ্ণ

ফুটবল বিশ্বকাপে শহরে রমরমা জুয়ার আসর উড়ছে লাখ টাকা


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:১৮ পিএম, ২৯ জুন ২০১৮ শুক্রবার | আপডেট: ০৩:১৮ পিএম, ২৯ জুন ২০১৮ শুক্রবার


ফুটবল বিশ্বকাপে শহরে রমরমা জুয়ার আসর উড়ছে লাখ টাকা

ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে নারায়ণগঞ্জ শহরময় শুরু হয়েছে জুয়া খেলা। ফুটবল কিংবা ক্রিকেট যেকোন খেলার আসর শুরু হতেই জুয়ার রমরমা আসর বসে পড়ে। আর এতে করে জুয়ার মহামারী ছোবলে অপরাধের মাত্রা বেড়ে যাচ্ছে। আর এতে করে পারিবারিক ও সামাজিক অবক্ষয় বেড়ে যাচ্ছে।

জুনের মাঝামাঝি অবস্থায় ফুটবল বিশ্বকাপের আসর শুরু হয়। আর সেই আসরকে কেন্দ্র করে জুয়ারীরা বেপরোয়া হয়ে উঠে। নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জুয়ার আসর বসিয়ে জুয়া খেলার নানা দৃশ্য দেখা যায়। এছাড়া আধুনিকতার ছোঁয়ায় মোবাইল ফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে জুয়া খেলা হয়ে থাকে।

জুয়ারীদের জুয়া খেলার জন্য ইস্যুর প্রয়োজন হয়। আর ফুটবল কিংবা ক্রিকেট খেলাকে ঘিরে জুয়ারীরা জুয়া খেলায় মত্ত হয়ে পড়ে। এর মধ্যে যদি বিশ্বকাপের মত বড় আসরের খেলা শুরু হয় তা জুয়ারীদের জন্য ঈদের আনন্দে পরিণত হয়। এতে করে জুয়ারীরা নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জুয়ার খেলার অসর বসিয়ে পড়ছে। আর এতে মোটা অংকের টাকা জুয়ার আসরে বাজিতে হেরে অনেকে সর্বস্ব হারাচ্ছে। কিন্তু জুয়ার নেশা ফের জুয়া খেলায় বাজি ধরতে টাকার জোগান দিতে গিয়ে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হচ্ছে। এ নিয়ে অনেক সময় অপরাধের নানা চিত্র দেখা যাচ্ছে। আর জুয়া খেলাকে কেন্দ্র করে অপরাধের ব্যাপরটি নতুন কিছু নয়। তাই এক কথায় জুয়া খেলার মধ্য দিয়ে অর্থনৈতিক, পারিবারিক, সামাজিক সহ সব দিক দিয়ে নেতিবাচক দিকগুলো লোকসানের কাঠগোড়ায় দাঁড়কড়াচ্ছে। এতে জুয়ারীর মানসম্মানবোধ না থাকায় তার পরিবার স্বজনদের এর দ্বায়ভার গ্রহণ করতে হচ্ছে।

জুয়া খেলার অনেক নিয়ম থাকলেও ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে খেলা জিতা-হারকে কেন্দ্র করে সবচেয়ে বেশি জুয়া খেলা হয়ে থাকে। এছাড়া কোন খেলোয়াড় কয়টা গোল দিবে অথবা গোল দিতে পারবে কিনা এ নিয়ে নানাভাবে জুয়া খেলা হয়ে থাকে। এছাড়া কোন দল কত মিনিটে গোল দিব, কোন দল প্রথমে গোল দিবে, প্রথম ১০ মিনিটে কোন গোল হবে কিনা, কোন নির্দিষ্ট সময়ে গোল হবে কিনা ইত্যাদি ফরমেটে জুয়া খেলার বাজি ধরা হয়। তবে ফুটবল বিশ্বকাপে সবেচেয়ে বেশি আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল দলকে ঘিরে জুয়া খেলা হচ্ছে। এর পাশাপাশি জার্মানি, পর্তুগাল, স্পেন সহ আরো কয়েকটি দলকে ঘিরে জুয়া খেলা বেশি হচ্ছে। আর প্রিয় তারকারা যারা এই আসরে ভাল খেলতে তাদেরকে ঘিরেও জুয়া খেলা হচ্ছে।

সাধারণত পাড়া মহল্লার নির্দিষ্ট কোন দোকানে টেলিভিশন সেট করে জুয়ারীরা একত্রিত হয়ে এসব জুয়ার বাজি ধরে থাকে। এছাড়া মোবাইল ফোনে কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জুয়া খেলার বাজির ধরা হয়ে থাকে। এছাড়াও বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগ করে জুয়া খেলা হয়ে থাকে।

একাধিক সূত্র বলছে, ‘জুয়ার আসরে হাজার হাজার লাখ লাখ টাকা বাজি ধরা হয়। আনেক সময় টাকা সংকটের ফলে দামি মোবাইল ফোন, জুয়েলারী অল্প দামে বিক্রি করে কিংবা বন্ধক রেখেও জুয়া খেলা হয়ে থাকে। আর এ নিয়ে প্রায় সময় জুয়ারীদের মাঝে ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টি হয়। আর তা কখনো কখনো খুনের মত বড় অপরাধের জন্ম দেয়।’

নাম না প্রকাশের শর্তে এক জুয়ারী জানায়, ‘জুয়া খেলায় কখনো লাভ হয়না। আজকে জুয়ার বাজি জিতলেও কালতে হারতে হচ্ছে। এতে করে জুয়ার টাকা কখনো থাকেনা। কিন্তু এটা এক ধরণের নেশা হয়ে গেছে। একারণে জুয়া খেলতে হচ্ছে।

জুয়ারীদের পরিবার সূত্র বলছে, ‘জুয়া খেলার কারণে তারা অনেক সময় ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্র বিক্রি করে জূয়ার টাকা জোগান দিচ্ছে। কিন্তু এ নিয়ে কথা বললে পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। তাই এখন আর কথা বলিনা। আগে এ নিয়ে কথা বললেই ঝগড়া হতো। আর এ কারণে আত্মীয় স্বজন সহ প্রতিবেশিদের কাছে অপমান অপদস্থ হতে হচ্ছে। কারণ প্রতিবেশিদের কোন কিছু চুরি হলে তার অভিযোগ আমাদের সন্তানদের উপরে উঠে। কারণ জুয়ারী বলে, যে কোন সময় জুয়ার নেশায় চুরি করতে পারে এমন সম্ভাবনার জেরা টেনে অভিযোগ তোলা হয়।’

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

খেলাধুলা -এর সর্বশেষ