ক্রীড়া কমপ্লেক্স নিয়ে বিব্রত শামীম ওসমানকে আশ্বস্ত মন্ত্রীর

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৮:৩৬ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার

ক্রীড়া কমপ্লেক্স নিয়ে বিব্রত শামীম ওসমানকে আশ্বস্ত মন্ত্রীর

নারায়ণগঞ্জ এক সময়ে দেশের খেলাধুলাতে প্রভাব বিস্তার করলেও এখানে উন্নতমানের স্টেডিয়াম ও ক্রীড়া কমপ্লেক্স না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে এতে বিব্রত জানান প্রভাবশালী এমপি শামীম ওসমান। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলার পরেই প্রধান অতিথি ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল অচিরেই নারায়ণগঞ্জে ইনডোর স্টেডিয়াম নির্মাণের আশ্বাস দেন।

মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর বিকেলে নারায়ণগঞ্জ ওসমানী পৌর স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালে প্রধান অতিথি হিসেবে রাসেল ও বিশেষ অতিথি হিসেবে শামীমও সমান উপস্থিত ছিলেন।

শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে একটা অনুরোধ রাখতে চাই। আমি খুব বিব্রত অবস্থায় আছি। আমি যখন ৯৬ তে আসি তখন বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়ামটা করেছিলাম খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম। এটা আমার দাদার নামে করেছিলাম। গত চার পাঁচ বছর আগে যিনি ক্রীড়া মন্ত্রী ছিলেন তিনি জনগনের সামনে কথা বলেছিলেন ক্রীড়া কমপ্লেক্স হওয়ার কথা। আমি মনে করি যখন কোন মন্ত্রী কথা দেন সেই কথাটা সরকারের। জাতির জনকের কণ্যা শেখ হাসিনার সরকার যা বলে তা করে। আমার এখানে হাজার হাজার কোটি টাকার কাজ করেছি। মোটামুটি ৯৫ভাগ কাজ শেষ। আমি ভালোবাসার মন্ত্রীকে আমি অনুরোধ জানাই যে তাঁর সাধ্য মত যত দ্রুত সম্ভব এই স্টেডিয়াম এলাকাটাকে একটি কমপ্লেক্সে পরিণত করে নারায়ণগঞ্জের মানুষের স্বপ্ন এবং নারায়ণগঞ্জ এত খেলোয়াড় সৃষ্টি করেছে সেই নারায়ণগঞ্জকে তিনি সম্মানিত করবেন। আমি আমার আদরের ছোট ভাই ভাতিজা যেটাই হোক মাননীয় মন্ত্রীকে আমি অনুরোধ করব যে উনি নারায়ণগঞ্জবাসীর মনের আশা পূরণ করে দিয়ে যাবেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, ‘এমন একটি পবিত্র মাটিতে এসেছি যে পবিত্র মাটিতে আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্য শামীম সমান সাহেবের দাদা থেকে শুরু করে বাবা, ভাই সকলেই এলাকার মানুষের এত বছর ধরে সেবা করে আসছেন। যার প্রতিদান উনি ওনার পক্ষ থেকে বার বার দিয়ে আসছেন। এই এলাকার মানুষের জন্য তিনি তাঁর হৃদয় উজাড় করে উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছেন এখনো করে যাচ্ছেন। কিছু দাবি তিনি আমার কাছে করেছেন। তবে একটু আগে আমি তালিকা দেখছিলাম সেই তালিকায় আমরা কিছু ইনডোর স্টেডিয়াম বাংলাদেশে করছি। এই তালিকায় আমি দেখলাম যে নারায়ণগঞ্জের নামটি নেই। এটা দেখে আমার নিজেরও খারাপ লাগে। শুধু ইনডোর স্টেডিয়াম দেখেই খারাপ লাগেনি। এই জেলায় একটি স্টেডিয়াম হবে।

তিনি আরো বলেন, নারায়ণগঞ্জ বাংলাদেশের ফুটবলকে সমৃদ্ধ করেছে। আমি মনে করি ফুটবলে যাদেরকে শুধু বাংলাদেশ নয় উপমহাদেশে যাদের নাম ছিল। যাদের নাম উপমহাদেশে ছড়িয়ে গিয়েছিল। সেই জেলা স্টেডিয়ামটির এই অবস্থা কোনো ভাবেই সেটা মেনে নেওয়া যায় না।

জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পস্থিত ছিলেন ডিডিএলজির পরিচালক মোঃ জাহিদুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও টুর্নামেন্ট কমিটির আহ্বায়ক মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ সেলিম রেজা, ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি এজেডএম ইসমাইল বাবুল, সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ টিটু, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম চেঙ্গিস, যুগ্ম সম্পাদক খোরশেদ আলম নাসির, কোষাধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা, সদস্য জাকির হোসেন শাহিন, রবিউল হোসেন, গোলাম গাউছ, মাকসুদ উল আলম, মোঃ আসলাম, ফিরোজ মাহমুদ সামা, ডা. রকিবুল ইসলাম শ্যামল, গৌতম কুমার সাহা, আনজুমান আরা আকসির, রোকসানা খবির সহ প্রশাসন ও ক্রীড়াঙ্গণের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


বিভাগ : খেলাধুলা


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আরো খবর
এই বিভাগের আরও