৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫, রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮ , ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ

rabbhaban

জাম্বু কমিটির অনেকেই লাপাত্তা, তরুণদের প্রাধান্য দিতে হবে : শিপলু


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ০৯:০০ পিএম, ৮ ডিসেম্বর ২০১৭ শুক্রবার


জাম্বু কমিটির অনেকেই লাপাত্তা, তরুণদের প্রাধান্য দিতে হবে : শিপলু

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির আইন ও মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপলু বলেছেন, আইনজীবী সমিতির পুরাতন নেতারা অক্ষমতা প্রকাশ করেছেন। সমিতির মধ্যে উভয় গ্রুপে চেইন অব কমান্ড ভেঙ্গে গেছে। তরুণেরা চাচ্ছে দুই দলেই নেতৃত্বের পরিবর্তন হোক। এই বিশৃঙ্খলা হচ্ছে প্রেগনেন্সি পেইন। এই পেইনের যুক্তি সংঘত কারণ রয়েছে।

আর বিএনপি গ্রুপের অবস্থা হচ্ছে “আমাদের নেতা খালেদা আমরা সবাই আলাদা।” নেতারা অনেক চুক্তিই করে ফেলে যে বিষয়ে আমরা অন্ধকারে থাকি। গত দুই থেকে তিনবারের নির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ার বিষয় ছিল এমন বিতর্কিত।

তিনি বলেন, “১২ গাড়ী সোলজার ১৩ গাড়ী মেজর।” নারায়ণগঞ্জ বারে বিএনপির সমস্যা নেতৃত্বে। মাথা মোটা কমিটি করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ অভিজাত ক্লাবে কম্পিউটারে টাইপ করে কেন্দ্রে পঠিয়ে দিয়ে। কেন্দ্রের নেতাদের কোন দোষ নাই। তারা বেশি মাথা খাটাতে পারেন না, সে সুযোগ নাই। কেউ না কেউ তাদের ভুল বুঝিয়ে এ কাজটি করে। সেই গ্রুপ বার বার এ কাজ করে পার পেয়ে যাচ্ছেন। কাগজ নাই যে কমিটির সেই কমিটিকে কতটুকু গ্রহণ করবে সাধারণ আইনজীবীরা।

তিনি বলেন, বিএনপির বার কমিটির মূল নেতৃত্বে পরিবর্তন আসতে হবে। পদত্যাগ করে নতুন যে কমিটি করা হয়েছে সেখানেও একই পদ পেয়েছেন নেতারা তার পরও খুশী। কারণ মূল্যায়ন না করা হউক অবমূল্যায়ন মেনে নেয়া যায় না। যেমন ভাল নেতা আছে অনেক ত্যাগ করেছেন কোন সন্দেহ নাই সেই নেতাকে জয়েন্ট সেক্রেটরী করা হয়েছে। অপরদিকে আজিজুর রহমান মোল্লা ১৫ বছর যার অভিজ্ঞতা, তাকে রাখা হয়েছে তার নিচে।

আরেকটি উদাহরণ জাম্বু কমিটির সভাপতি হুমায়ুন ভাই রাত ৮টার পর পাওয়া যায় না। অথচ বারী ভাই পরিক্ষিত। তিনি সবার শেষে বিদায় নেন। বিষয়টি মূল্যায়ন করতে হবে। কারণ আগামীতে প্রেসিডেন্ট এবং সেক্রটারী পদ বিএনপির মধ্যে রাখা দরকার। তবে ঐক্যবদ্ধ না হলে ভাল রেজাল্ট আসবে না। মুরুব্বিদের বুঝতে হবে তরুণরা কী চায়।

অ্যাডভোকেট শিপলু বলেন, সাখাওয়াত ভাইয়ের আবির্ভাব শুরু হয়েছে কেবল। তৈমুর ভাই বিআরটিসিতে থাকার সময় অনেকেই দোকান বাস নিয়েছেন। সেই তৈমূর ভাই পদ পদবী চায় নাই। তাকে এবং সাখাওয়াত ভাইকে ফ্রন্টে রাখতে হবে। তারা উৎসাহ দিবেন। অথচ কেউ কেউ পিছন দিকে টানা টানি করেন। তরুণদের উঠতে দেন না।

বৃহস্পতিবার ৭ ডিসেম্বর নিউজ নারায়ণগঞ্জের সংবাদ বিশ্লেষণ নিয়ে বিশেষ আয়োজন ‘টক অব দ্যা নারায়ণগঞ্জ’ এর আলোচনায় এ মন্তব্য করেন তিনি। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন সংবাদিক মাজহারুল ইসলাম রোকন।

নারায়ণগঞ্জে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন সংবাদ বিশ্লেষনে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির আইন ও মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপলু বলেন, আইনজীবীদের মধ্যে বিএনপি ভোটার বেশি দাবি করলেও পরাজিত বার বার পরাজিত হওয়ার পেছনে অনেক কারন রয়েছে। এর মধ্যে একটি কারণ হচ্ছে ফ্লোটিং ভোটাররা চাইতো সরকারী দল সমিতির ক্ষমতায় থাকলে, দুই কোর্ট এক জায়গায় রাখা সম্ভব। কিন্তু আইনজীবীরা হতাশ হয়েছেন। পরিবেশ গণতান্ত্রিক আছে বলে নির্বাচন প্রত্যাশিত প্রার্থীরা আগে ভাগে গণসংযোগ করছেন। বিষয়টি পজেটিভ ভাবেই নিতে হবে। আগেরবার যারা ভাল ফল করে নাই তারাই মাঠে নেমেছে এবার।

অ্যাডভোকেট শিপলু নিজের বিষয়ে বলেন, দল মনে করলে আমি নির্বাচন করবো। তবে মনোনয়ন না দিলেও দলের জন্য নির্বাচন করবো আগামীতে। আর টিম ওয়ার্ক করলে ভাল একটি রেজাল্ট পাওয়া যাবে। সবাই একসাথে কাজ করবো। মুরুব্বিরা আমাদের সঙ্গে বসলে ১৭টি পদে জয়ী হয়ে বিএনপির ঘরে আনতে পারবো। আওয়ামীলীগ এর অনেক ভুল রয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

টক অব দ্যা নারায়ণগঞ্জ -এর সর্বশেষ