২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪, বুধবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ , ৭:১৬ অপরাহ্ণ

গণতন্ত্র সন্ত্রাস ইস্যুতে আ.লীগ ও বিএনপি নেতার তুমুল বিতর্ক


সিটি করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত : ১০:৫০ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭ বুধবার | আপডেট: ১১:১৭ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭ বুধবার


গণতন্ত্র সন্ত্রাস ইস্যুতে আ.লীগ ও বিএনপি নেতার তুমুল বিতর্ক

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলী বলেছেন, রাস্তাঘাট, মসজিদ মন্দির, স্কুল মাদ্রাসার যে উন্নয়ন করেছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তার প্রেক্ষিতে নৌকা নিয়ে আগামীতে যে নির্বাচনে প্রার্থী হবেন, তিনিই ভোট পাবেন।

অপরদিকে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাহিদ হাসান রোজেল বলেছেন, উন্নয়নের আড়লে অনুন্নয়নের কাজে আরো বেশি ব্যায় হচ্ছে কী না তা দেখতে হবে।

এমন পাল্টাপাল্টি বিতর্ক হয়েছে নিউজ নারায়ণগঞ্জের বিশেষ লাইভ টক শো ‘নারায়ণগঞ্জ কথন’ এ। পাল্টা পাল্টি অভিযোগ থেকে চুল পরিমাণ ছাড় দেয়নি কেউ কেউকে।

তবে দুই আলোজক একমত হয়েছেন নারায়ণগঞ্জে আগের তুলনায় সন্ত্রাস কমেছে এবং আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি এক সঙ্গে অবস্থান আগামীতে করতে পারবে।

২৮ নভেম্বর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় নারায়ণগঞ্জে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে নিউজ নারায়ণগঞ্জের বিশেষ লাইভ টক শো ‘নারায়ণগঞ্জ কথন’ এ কথা বলেন আলোচকরা। ’নারায়ণগঞ্জ কথনে’ এর ৩৮ তম পর্বের বিষয় ছিল রাজনীতিতে নতুন ধারা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন সাংবাদিক মাজহারুল ইসলাম রোকন।

যুবলীগ নেতা মীর সোহেল বলেন, গণতন্ত্র আছে বলেই আজ একসঙ্গে বসলাম। নারায়ণগঞ্জে সবাই বিএনপি এবং আওয়ামীলীগ এক সঙ্গে থাকছি বসছি চলছি। সংগঠন ড্রইং রুমে বসে করা যেতে পারে। কেউ তাদের ভয় দেখায় না। ভয় দেখানো হয়নি। ভয়ের কথা বলতে পারবে না। বিএনপির মিছিল মিটিংয়ে আওয়ামী লীগ বাধা দেয় না। কেখনো দেয়ার নিদের্শ পাইনি নির্দেশ দেইনাই। বরং বিএনপির মামলার ভয়ে তিন বছর পর ফতুল্লা এসেছি। অনেকে পাঁচ বছরেও আসতে পারেনি।

অপরদিকে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রোজেল বলেন, বিএনপির ক্ষমতার সময় আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়েছে খোলা মাঠে। সেখানে বিএনপি বাধা দেয়নি। আওয়ামী লীগ নেতাদের তিন বছর বাইরে থাকার কারণ আমাদের কাছে দৃশ্যমান নয়। অথচ বর্তমান সময়ে বিয়ে বাড়িতে গেলে পুলিশের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। বিয়ে অনুষ্ঠানেও বাধা। সন্ত্রাস এখন গ্রাম পর্যায় থেকে রাষ্ট্রিয় পর্যায়ে চলে গেছে। এমন অবস্থা হয়েছে যে সরকারী দলের লোকই গুম হয়ে যাচ্ছে। বিএনপি ক্ষমতায় এসে সন্ত্রাসী জনপদ নারায়ণগঞ্জ থেকে অস্ত্র উঠিয়ে সন্ত্রাসী মুক্ত করা হয়েছে।

নবগঠিত জেলা কমিটির বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলী বলেন, সবে কমিটি গঠিত হয়েছে। যুবলীগের কমিটিতে নতুন মুখ আসবে ধারণা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, যেই ক্ষমতায় আসুক আমরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলতে পারি। দেশ সবার, উন্নয় করতে হবে মিলেমিশে।

জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাহিদ হাসান রোজেল বলেন, বিএনপির মধ্যে কোন্দল নাই। আওয়ামী লীগে কোন্দল রয়েছে। সংসদ সদস্য কবরীর উপর হামলা হয়েছে। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মার খেয়েছে দলের লোকদের দ্বারা। তবে উদার বিএনপি উদারতন্ত্রের পক্ষে আছে।

নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন:
Shirt Piece

টক শো -এর সর্বশেষ