ফেসবুক গ্রুপ সদস্যদের মানবিক হতে হবে : হৃদয় ও রুবাইয়া (ভিডিও)

স্পেশাল করেসপনডেন্ট || নিউজ নারায়ণগঞ্জ ০৯:১৯ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার



ফেসবুক গ্রুপ সদস্যদের মানবিক হতে হবে : হৃদয় ও রুবাইয়া (ভিডিও)

মাত্র ২০০ জনকে নিয়ে ২০১০ সালে গ্রুপের সূচনা, দিনে দিনে তা জনপ্রিয় হয়ে আজ একলক্ষ বিশ হাজার মেম্বারে ঠেকেছে। এর জন্য গ্রুপের সকল সক্রিয় সদস্যদের কাছে কৃতজ্ঞ নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপের এডমিন আরিফিন রওশন হৃদয়। পাশাপাশি জনপ্রিয় গ্রুপের বাইরে এসে মেয়েদের আলাদা ব্যাক্তিগত তথ্য শেয়ারের প¬াটফর্ম তৈরী করতেই রোবাইয়া জুলকার খানের মাধ্যমে সূচনা হয় গার্লস অফ নারায়ণগঞ্জ গ্রুপের, যার সদস্য ইতোমধ্যে ৩২ হাজার ছাড়িয়েছে। পাশাপাশি নারীদের নিয়ে বিভিন্ন আয়োজন করে সুনাম কুড়িয়েছে এই গ্রুপটি।

২৮ নভেম্বর বুধবার রাতে নিউজ নারায়ণগঞ্জের বিশেষ লাইভ টক শো ‘শীতল জলের গল্প’ এ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ফেসবুক গ্রুপ গার্লস অব নারায়ণগঞ্জ এর এডমিন রোবাইয়া জুলকার খান এবং আরেক গ্রুপ নারায়ণগঞ্জস্থান এর এডমিন আরিফিন রওশন হৃদয়। আলোচনার বিষয় ছিল ভার্চুয়াল, ফেসবুক ও তারুণ্য। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন সাবিত আল হাসান।

হৃদয় ও রোবাইয়া উভয়েই জানান গ্রুপ পরিচালনার ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছে তাদের। কারও প্রতিহিংসার মুখে পরে বিভিন্ন হুমকি ধমকি শোনা ও গ্রুপের অভ্যন্তরীণ সমস্যা সমাধানের জন্য মধ্যস্থতা করা। যা এখন পর্যন্ত প্রতিনিয়ত করে যেঁতে হচ্ছে তাদের। এছাড়া গ্রুপের মাধ্যমে বিভিন্ন সমস্যার তাৎক্ষনিক সমাধান ও অসহায় দুঃস্থদের জন্য সাহায্য সহযোগিতা পাওয়াকে গ্রুপের অনেক বড় সফলতা বলে মনে করেন তারা।

তবে ফেইসবুক গ্রুপের জনপ্রিয়তা থাকলেও সেটি তরুন ও টিনএইজদের জন্য মোটেও শুভকর নয় তা অকপটে স্বীকার করেন দুজনেই। সে হিসেবে নারায়ণগঞ্জ শহরের মাঠ কমে যাওয়াকেও দায়ী করেন তারা। এছাড়া বিভিন্ন টুর্নামেন্ট আয়োজন কমে যাওয়াকেও অন্যতম প্রধান কারণ বলে তারা মনে করছেন। যদি সেগুলো কন্টিনিউ করা যেত তবে ভার্চুয়াল এডিকশনের পাশাপাশি মাদক থেকেও মুক্তি পেত তরুনরা।

ফেইসবুক গ্রুপের আগামীর পরিকল্পনা জানাতে গিয়ে বলেন, সামাজিক কাজ ও নারায়ণগঞ্জকে পজেটিভ ভাবে তুলে ধরার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। এছাড়া বৃদ্ধাশ্রমে সাহায্য সহযোগিতা ও আসন্ন শীত মৌসুমে বিভিন্ন শীতবস্ত্র বিতরণ সংস্থার পাশে থেকে সহযোগী হওয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যাক্ত করেন উভয় গ্রুপের এডমিন। পাশাপাশি গ্রুপের সদস্যদের বিভিন্ন মানবিক কাজে অগ্রসর হওয়ার আহ্বান জানান তারা।

ফেসবুক গ্রুপ গার্লস অব নারায়ণগঞ্জ এর এডমিন রুবাইয়া জুলকার খান বলেন, মেয়েদের বিভিন্ন প্রয়োজনে যাতে কাজ করতে পারে সে জন্যই গার্লস অব নারায়ণগঞ্জ গঠন করা হয়েছে। গ্রুপটিতে অনেকেই কাজ করছেন।

তবে সমস্যাও রয়েছে। যা বলতে গেলে প্রচুর সমস্যা। প্রথম সমস্যা যা বড় আকারে মনে হচ্ছে। ফেইক আইডি সমস্যা। আরকটি সমস্যা হচ্ছে কমেন্ট সমস্যা। অশালীন কমেন্ট এর মুখোমুখি হচ্ছি প্রতিনিয়ত। তবে উপকার কম হচ্ছে না। অনেক উপকার হচ্ছে। বিভিন্ন অনুষ্ঠান করছি, সাহায্য-সহযোগীতা করা হচ্ছে গ্রুপ থেকে।

ফেসবুকের আরেক গ্রুপ নারায়ণগঞ্জস্থান এর এডমিন আরিফিন রওশন হৃদয় বলেন, আমাদের গ্রুপের সমস্যা হুমকির সমস্যা। হুমকী ধমকি দেয় সকল মত ও পথের বা রাজনীতিকরা। আবার সেই দলেরই অন্য নেতাকর্মীরা তা সামাল দিচ্ছেন। তাই পুলিশ পর্যন্ত যেতে হয়নি।

আরেকটি সমস্যা রয়েছে তা হচ্ছে ভাল কোন পোস্ট নাই বললেই চলে। ভাল কোন পোস্ট বা সাহায্য সহযোগীতা চেয়ে করা পোস্ট তেমন কোন নজর কারো পড়ে না। এতে আমরা মাঝে মাঝে হতাশ হয়ে যাই। তবে যতটুকু সহযোগীতা হয় তাওবা কম কিসে।

তিনি বলেন, এতোটাই নেটে সময় দেই আমরা যার কারনে রিয়েল লাইফ মিস করছে। এর মধ্যে ফেসবুকে বেশি সময় কাটাই। ভার্চুয়াল লাইফ থেকে রিয়েল লাইফে আসতে হবে। এ জন্য দরকার খেলার মাঠ এবং খেলাধুলায় মনোযগ দেয়া।

ফেসবুক গ্রুপ গার্লস অব নারায়ণগঞ্জ এর এডমিন রুবাইয়া জুলকার খান বলেন, মাঠ যেটুকু আছে তাও কিন্তু কাজে লাগছে না। মাঠে খেলাধুলায় অথবা দর্শক হিসেবে যে এনার্জি দিবে তা মোবাইলে দিয়ে দিচ্ছে। ভার্চুয়াল জগতে বেশি থাকছি।

বই পর্যন্ত পিডিএফ ফাইল নামিয়ে পড়ছি। অথচ বই মেলা হয়। সেখানে যাই বই কিনতে নয়, সেলফি তুলতে। বাচ্চাদের বিরুক্তি থেকে বাঁচতে ফোন তুলে দেয়া হচ্ছে। এক সময় তারা এই মোবাইলের প্রতি আসক্ত হয়ে যাচ্ছে। সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, মাদক আমাদের সমাজে খুব সহজলভ্য হয়ে গেছে। যা আমাদের সমাজে ঢুকতে বেশি সহায়তা করছে। এতে যুবকসহ বিভিন্ন বয়সের মানুষ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।

রুবাইয়া জুলকার খান বলেন, ফেসবুক যেন আমাদের ব্যবহার না করে। আমরা যেন ফেসবুককে পজেটিভ ভাবে ব্যবহার করতে পারি তাতে সচেষ্ট হবে।

অনুষ্ঠানের সবশেষে আরিফিন হৃদয় জানান, নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপের এডমিন প্যানেলের সদস্য মাহফুজ নয়ন দীর্ঘ সময় যাবৎ প্যারালাইজড অবস্থায় রয়েছেন। পিতা হারা এই ছেলেকে সুস্থ করতে মাত্র ৮/৯ লাখ টাকাই পারে তাকে সুস্থ করে তুলতে। নারায়ণগঞ্জ দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জেলা হওয়া স্বত্বেও মাহফুজরা বিছানা ছেড়ে উঠতে পারে না। ধনীক শ্রেনীর একটু নজর আর গ্রুপের সদস্যদের মানবিক ভাবে এগিয়ে আসলেই সম্ভব মাহফুজ নয়নকে সুস্থ করে তুলতে।


বিভাগ : টক শো


নিউজ নারায়ণগঞ্জ এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

এই বিভাগের আরও